রাত ১০:৫৩ | রবিবার | ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কোতোয়ালী পুলিশের তৎপরতায় আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নতি; ডাকাতি শূন্যের কোঠায়

বিল্লাল হোসেন প্রান্তঃ

ময়মনসিংহ জেলা সদরে কোতোয়ালী থানা পুলিশের সার্বিক নজরদারি ও তৎপরতায় আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির ব্যাপক উন্নতি ঘটেছে বলে সাধারণ জনগণের মাঝে আলোচনা রয়েছে। যেকোন অপ্রিতিকর ঘটনা বা অপরাধ দ্রুত নিয়ন্ত্রণ ও ডিটেকশনে দক্ষতার পরিচয় দিচ্ছেন থানা পুলিশ। জেলা পুলিশ সুপার মোহাঃ আহমার উজ্জামানের দিক নির্দেশনায় ও কোতোয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফিরোজ তালুকদারের দক্ষ নেতৃত্ব ও তৎপরতায় জেলা সদরের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতিতে আমুল পরিবর্তন ঘটেছে। বিছিন্ন ঘটনা ছাড়া এখানে ডাকাতি শূন্যের কোঠায় নেমে এসেছে। সাধারণ জনগণের মাঝে স্বস্তি নেমে এসেছে বলে মনে করেন সচেতন মহল।

ব্রম্মপুত্র নদের উত্তর পাশে চরাঞ্চলে ৫টি ইউনিয়ন, দক্ষিণে ৮টি ইউনিয়ন ও ৩৩ টি ওয়ার্ড সমন্বয়ে একটি সিটি করপোরেশন নিয়ে ময়মনসিংহ সদর উপজেলা গঠিত। এখানে মোট জনসংখ্যা প্রায় ১০ লাখ। যার মধ্যে ঘনবসতিপূর্ণ শহর কেন্দ্রিক প্রায় ৬ লাখ মানুষের বসবাস। এ বৃহৎ আয়তন ও জনসংখ্যার নিরবিচ্ছিন্ন নিরাপত্তা ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখতে কোতোয়ালী থানা ও তিনটি ফাঁড়ির প্রায় ১৮০ জন অফিসার ফোর্স দিন রাত দায়িত্ব পালন করছেন। এতো বিশাল ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার বিপরীতে কোতোয়ালী পুলিশ তথা জেলা পুলিশের বর্তমান নিরাপত্তা নিশ্চিত কার্যক্রমকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সচেতন মহল।

 

 

খবর নিয়ে জানা গেছে, কোতোয়ালী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফিরোজ তালুকদার এ থানায় যোগদানের পর জেলা সদরে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অনেকাংশে উন্নতি ঘটেছে। পুলিশ প্রশাসনে দীর্ঘ চাকুরী সুবাধে তিনি দেশের গুরুত্বপূর্ণ থানায় সফলতার সহিত দায়িত্ব পালন করেন। তিনি কোতোয়ালী মডেল থানায় যোগদানের পর এখানকার আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখতে পুলিশি কার্যক্রমকে নতুনত্বের আদলে সাজিয়েছেন। কোতোয়ালী থানার অন্তর্ভুক্ত এলাকাগুলোতে নিরবিচ্ছিন্ন নিরাপত্তা জোরদার করতে প্রতিদিন ১২০ জন পুলিশ সদস্য মাঠ পর্যায়ে কাজ করছেন। দিনের বেলায় ৪ টি টহল, ৪ টি পিকেট, মটরসাইকেল টিম কাজ করছে। রাতে ৬ টি মোবাইল টিম, ৬ টি হোন্ডা টিম, ৩ টি সিএনজি মোবাইল টিম কোতোয়ালী এলাকা জুড়ে টহল প্রদান করে। এছাড়া গভীর রাতে নগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে রাত ৩ টার পর চেকপোস্ট বসানো হয়।

জেলা পুলিশ সুপার মোহাঃ আহমার উজ্জামানের দিক নির্দেশনায় কোতোয়ালী থানা এলাকার অপরাধ প্রবনতা প্রতিরোধ করতে ও সার্বিক আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভালো রাখতে ৪৪ বিট এলাকা নির্ধারন করেছেন ওসি ফিরোজ তালুকদার। প্রতিটি বিট এলাকায় নির্দিষ্ট দায়িত্বপ্রাপ্ত বিট অফিসার রয়েছেন। এসব বিট অফিসাররা প্রতিনিয়ত তাদের এলাকার সাধারণ জনগনের কাছ থেকে তথ্য নিয়ে তা ওসিকে অবহিত করছেন। এক্ষেত্রে অধিকাংশ অপরাধ সংগঠিত হওয়ার পরই থানা পুলিশ তার রহস্য উদঘাটন করতে সক্ষম হচ্ছে। থানা পুলিশের তৎপরতায় চুরি,ছিনতাই অনেকাংশে কমে আসলেও ডাকাতির ঘটনা শূন্যের কোঠায় নেমে এসেছে। শহরতলিতে বিচ্ছিন্ন কিছু চুরি ও ছিনতাইয়ের ঘটনা পুলিশকে বির্বতকর পরিস্থিতির সম্মুখীন করছে বলে জানা গেছে। এক্ষেত্রে পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন যেসব ঘটনার অভিযোগ থানায় আসে তা অবশ্যই গুরুত্বের সাথে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হয়। তবে ঘটমান কোন বিষয় থানা পুলিশ জানতে না পারলে তা নিয়ে পুলিশকে দোষারোপ করা সমচিন নয়।

 

 

জেলা সদরের সার্বিক আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে ময়মনসিংহ নাগরিক আন্দোলন নেতা ও বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন এর জেলা সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নজরুল ইসলাম চুন্নু এই প্রতিবেদককে বলেন, সারা দেশের তুলনায় ময়মনসিংহের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অনেকটাই ভালো। বর্তমান পুলিশ অনেক তৎপর ও উন্নত হয়েছে। এতো বড় জেলা সদরের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে অতি দ্রুত মেট্রোপলিটন বাস্তবায়ন করতে হবে।

 

 

জানা গেছে গত মাসে কোতোয়ালী মডেল থানায় ১০৭ টি মামলা এফআইআর ভূক্ত হয়।  এসব মামলায় ১৯৮ জন আসামীকে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ। মামলা নিষ্পত্তি হয় ১২৩ টির। এসব মামলার মধ্যে ২০ টি মাদক মামলায় ২৯ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ। উদ্ধার হয় ২৩১ পিস ইয়াবা, ৪১ গ্রাম হেরোইন, ৮৩০ গ্রাম গাঁজা, ৩০ পিস নেশা জাতীয় ইনজেকশন। এমাসে দ্রুত বিচার আইনের ছিনতাই ২টি মামলার ৭ জন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়। এছাড়া চাঞ্চল্যকর একটি অপহরণ মামলার আসামী গ্রেফতারসহ ভিকটিককে উদ্ধার করে কোতোয়ালী পুলিশ। এমাসে গরু চুরিসহ ১০ টি চুরি মামলা হয়। যার মধ্যে চুরি হওয়া গরু, চুরি যাওয়া স্বর্ণের চেইন, মোবাইল, ইলেক্ট্রনিক সামগ্রী উদ্ধার করে থানা পুলিশ।

 

 

এদিকে চলতি ফেব্রুয়ারি মাসে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত চাঞ্চল্যকর তিনটি হত্যাসহ ৯১ টি মামলা এফআইআর ভূক্ত হয়। প্রতিটি হত্যাকান্ড সংগঠিত হওয়ার ২৪ ঘন্টার মাঝেই থানা পুলিশ আসামীদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। এর মধ্যে চরগোবিন্দ এলাকায় বন্ধুদের হাতে গলা কেটে হত্যার শিকার হওয়া মোঃ রাকিবুল ইসলাম রাকিবের হত্যাকারী কবিরকে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ। একইভাবে কেওয়াটখালি রেল লাইনের পাশে গলা কেটে হত্যা করা হয় আশিক ইমরান নামের এক যুবককে। ঘটনার ২৪ ঘন্টার মধ্যে রাজিকুল ইসলাম রুবেল তার স্ত্রী জাকিয়া সুলতানাকে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ। ক্লু লেস প্রতিটি হত্যাকান্ডের আসামীকে দ্রুত গ্রেফতার ও ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিতে সক্ষম হয় থানা পুলিশ। এছাড়া চলতি মাসে থানা পুলিশ জি আর ও সি আর ৭৬ টি ওয়ারেন্ট, ৩ টি সাজা নিষ্পত্তি করতে সক্ষম হয়। এমাসে ১৪ টি মাদক মামলায় ২৫ জন মাদক ব্যাবসায়ীকে গ্রেফতার করে কোর্টে সোপর্দ করে থানা পুলিশ। উদ্ধার হয় ১১০ পিস ইয়াবা, ১ কেজি ৭০০ গ্রাম গাঁজা, ২৩ পিস নেশা জাতীয় ইনজেকশন, ৪ বোতল বিদেশি মদ । এছাড়াও এমাসে দুটি ছিনতাই মামলায় ৫ আসামীকে গ্রেফতার, ৪ টি চুরি মামলায় গ্যাস সিলিন্ডার উদ্ধার করে থানা পুলিশ।

 

 

কোতোয়ালী পুলিশের তৎপরতায় জেলা সদরে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির এমন পরিবর্তনকে সাধুবাদ জানিয়ে একজন অপরাধ বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন, একটি এলাকা বা জেলায় সাধারণ জনগণ যখন অপরাধ প্রবণতার কারণ অপরাধ থেকে বিরত থাকে তখনই সার্বিক উন্নতি ঘটে। সমাজের সাথে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সমন্বয় ও দক্ষ নেতৃত্বের বাস্তবায় ঘটলে এমন পরিবর্তন সম্ভব। নির্দিষ্ট একটি কারণের অবনতি ঘটলে সার্বিক আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতি চিহ্নিত করা অযৌক্তিক মনে করে বিশেষজ্ঞরা।

Print Friendly, PDF & Email

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» দুঃসময়ের ত্যাগী নেতৃত্বের হাতেই থাকবে আগামী আওয়ামী লীগ- ময়মনসিংহে বাহাউদ্দিন নাছিম

» শেখ রেহেনার জন্মদিনে ময়মনসিংহ সদর উপজেলা যুবলীগের উদ্যোগে মিলাদ ও দোয়া

» বাহাউদ্দিন নাসিম এর আগমন উপলক্ষে  ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

» কথা ক্লিয়ার-শিক্ষিত,ক্লিন ইমেজ যুবকদের জন্য অবারিত যুবলীগ- কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক খসরু

» ময়মনসিংহ জেলা ও মহানগর যুবলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে

» ময়মনসিংহ মহানগরী জু্ড়ে শোক আয়োজনে মোহিত উর রহমান শান্ত

» শোক দিবসে যুবলীগনেতা সব্যসাচীর উদ্যেগে অসহায়দের মাঝে বস্ত্র বিতরণ ও গণভোজ

» ১৫ আগস্ট পালন উপলক্ষে ময়মনসিংহ মহানগর সাধারণ সম্পাদকের মতবিনিময় সভা

» ময়মনসিংহে মহানগর যুবলীগের উদ্যোগে মাসব্যাপী রেশনিং সিস্টেমে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

» শর্ত সাপেক্ষে খুলে দেয়া হয়েছে জেলা স্কুল মোড়ের সেই ত্রুটিপূর্ণ ১৪ তলা ভবন

» সংসার ফিরে পেতে চায় ময়মনসিংহের ডাক্তার জান্নাতুল   

» নগর জুড়ে ময়মনসিংহ মহানগর সাধারণ সম্পাদকের ইফতার বিতরণ

» প্রধানমন্ত্রীর উপহার প্রাপ্যদের হাতে তুলে দিচ্ছেন ময়মনসিংহের ডিসি এনামুল হক

» ময়মনসিংহে অসহায় কৃষকের ধান কেটে ঘরে পৌছে দিলো ছাত্রলীগ নেতা টুটুল

» ময়মনসিংহ টিসিএ’র সভাপতি নুরুজ্জামান সম্পাদক দেলোয়ার 

আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com

,

basic-bank

কোতোয়ালী পুলিশের তৎপরতায় আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নতি; ডাকাতি শূন্যের কোঠায়

বিল্লাল হোসেন প্রান্তঃ

ময়মনসিংহ জেলা সদরে কোতোয়ালী থানা পুলিশের সার্বিক নজরদারি ও তৎপরতায় আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির ব্যাপক উন্নতি ঘটেছে বলে সাধারণ জনগণের মাঝে আলোচনা রয়েছে। যেকোন অপ্রিতিকর ঘটনা বা অপরাধ দ্রুত নিয়ন্ত্রণ ও ডিটেকশনে দক্ষতার পরিচয় দিচ্ছেন থানা পুলিশ। জেলা পুলিশ সুপার মোহাঃ আহমার উজ্জামানের দিক নির্দেশনায় ও কোতোয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফিরোজ তালুকদারের দক্ষ নেতৃত্ব ও তৎপরতায় জেলা সদরের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতিতে আমুল পরিবর্তন ঘটেছে। বিছিন্ন ঘটনা ছাড়া এখানে ডাকাতি শূন্যের কোঠায় নেমে এসেছে। সাধারণ জনগণের মাঝে স্বস্তি নেমে এসেছে বলে মনে করেন সচেতন মহল।

ব্রম্মপুত্র নদের উত্তর পাশে চরাঞ্চলে ৫টি ইউনিয়ন, দক্ষিণে ৮টি ইউনিয়ন ও ৩৩ টি ওয়ার্ড সমন্বয়ে একটি সিটি করপোরেশন নিয়ে ময়মনসিংহ সদর উপজেলা গঠিত। এখানে মোট জনসংখ্যা প্রায় ১০ লাখ। যার মধ্যে ঘনবসতিপূর্ণ শহর কেন্দ্রিক প্রায় ৬ লাখ মানুষের বসবাস। এ বৃহৎ আয়তন ও জনসংখ্যার নিরবিচ্ছিন্ন নিরাপত্তা ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখতে কোতোয়ালী থানা ও তিনটি ফাঁড়ির প্রায় ১৮০ জন অফিসার ফোর্স দিন রাত দায়িত্ব পালন করছেন। এতো বিশাল ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার বিপরীতে কোতোয়ালী পুলিশ তথা জেলা পুলিশের বর্তমান নিরাপত্তা নিশ্চিত কার্যক্রমকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সচেতন মহল।

 

 

খবর নিয়ে জানা গেছে, কোতোয়ালী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফিরোজ তালুকদার এ থানায় যোগদানের পর জেলা সদরে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অনেকাংশে উন্নতি ঘটেছে। পুলিশ প্রশাসনে দীর্ঘ চাকুরী সুবাধে তিনি দেশের গুরুত্বপূর্ণ থানায় সফলতার সহিত দায়িত্ব পালন করেন। তিনি কোতোয়ালী মডেল থানায় যোগদানের পর এখানকার আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখতে পুলিশি কার্যক্রমকে নতুনত্বের আদলে সাজিয়েছেন। কোতোয়ালী থানার অন্তর্ভুক্ত এলাকাগুলোতে নিরবিচ্ছিন্ন নিরাপত্তা জোরদার করতে প্রতিদিন ১২০ জন পুলিশ সদস্য মাঠ পর্যায়ে কাজ করছেন। দিনের বেলায় ৪ টি টহল, ৪ টি পিকেট, মটরসাইকেল টিম কাজ করছে। রাতে ৬ টি মোবাইল টিম, ৬ টি হোন্ডা টিম, ৩ টি সিএনজি মোবাইল টিম কোতোয়ালী এলাকা জুড়ে টহল প্রদান করে। এছাড়া গভীর রাতে নগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে রাত ৩ টার পর চেকপোস্ট বসানো হয়।

জেলা পুলিশ সুপার মোহাঃ আহমার উজ্জামানের দিক নির্দেশনায় কোতোয়ালী থানা এলাকার অপরাধ প্রবনতা প্রতিরোধ করতে ও সার্বিক আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভালো রাখতে ৪৪ বিট এলাকা নির্ধারন করেছেন ওসি ফিরোজ তালুকদার। প্রতিটি বিট এলাকায় নির্দিষ্ট দায়িত্বপ্রাপ্ত বিট অফিসার রয়েছেন। এসব বিট অফিসাররা প্রতিনিয়ত তাদের এলাকার সাধারণ জনগনের কাছ থেকে তথ্য নিয়ে তা ওসিকে অবহিত করছেন। এক্ষেত্রে অধিকাংশ অপরাধ সংগঠিত হওয়ার পরই থানা পুলিশ তার রহস্য উদঘাটন করতে সক্ষম হচ্ছে। থানা পুলিশের তৎপরতায় চুরি,ছিনতাই অনেকাংশে কমে আসলেও ডাকাতির ঘটনা শূন্যের কোঠায় নেমে এসেছে। শহরতলিতে বিচ্ছিন্ন কিছু চুরি ও ছিনতাইয়ের ঘটনা পুলিশকে বির্বতকর পরিস্থিতির সম্মুখীন করছে বলে জানা গেছে। এক্ষেত্রে পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন যেসব ঘটনার অভিযোগ থানায় আসে তা অবশ্যই গুরুত্বের সাথে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হয়। তবে ঘটমান কোন বিষয় থানা পুলিশ জানতে না পারলে তা নিয়ে পুলিশকে দোষারোপ করা সমচিন নয়।

 

 

জেলা সদরের সার্বিক আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে ময়মনসিংহ নাগরিক আন্দোলন নেতা ও বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন এর জেলা সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নজরুল ইসলাম চুন্নু এই প্রতিবেদককে বলেন, সারা দেশের তুলনায় ময়মনসিংহের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অনেকটাই ভালো। বর্তমান পুলিশ অনেক তৎপর ও উন্নত হয়েছে। এতো বড় জেলা সদরের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে অতি দ্রুত মেট্রোপলিটন বাস্তবায়ন করতে হবে।

 

 

জানা গেছে গত মাসে কোতোয়ালী মডেল থানায় ১০৭ টি মামলা এফআইআর ভূক্ত হয়।  এসব মামলায় ১৯৮ জন আসামীকে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ। মামলা নিষ্পত্তি হয় ১২৩ টির। এসব মামলার মধ্যে ২০ টি মাদক মামলায় ২৯ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ। উদ্ধার হয় ২৩১ পিস ইয়াবা, ৪১ গ্রাম হেরোইন, ৮৩০ গ্রাম গাঁজা, ৩০ পিস নেশা জাতীয় ইনজেকশন। এমাসে দ্রুত বিচার আইনের ছিনতাই ২টি মামলার ৭ জন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়। এছাড়া চাঞ্চল্যকর একটি অপহরণ মামলার আসামী গ্রেফতারসহ ভিকটিককে উদ্ধার করে কোতোয়ালী পুলিশ। এমাসে গরু চুরিসহ ১০ টি চুরি মামলা হয়। যার মধ্যে চুরি হওয়া গরু, চুরি যাওয়া স্বর্ণের চেইন, মোবাইল, ইলেক্ট্রনিক সামগ্রী উদ্ধার করে থানা পুলিশ।

 

 

এদিকে চলতি ফেব্রুয়ারি মাসে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত চাঞ্চল্যকর তিনটি হত্যাসহ ৯১ টি মামলা এফআইআর ভূক্ত হয়। প্রতিটি হত্যাকান্ড সংগঠিত হওয়ার ২৪ ঘন্টার মাঝেই থানা পুলিশ আসামীদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। এর মধ্যে চরগোবিন্দ এলাকায় বন্ধুদের হাতে গলা কেটে হত্যার শিকার হওয়া মোঃ রাকিবুল ইসলাম রাকিবের হত্যাকারী কবিরকে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ। একইভাবে কেওয়াটখালি রেল লাইনের পাশে গলা কেটে হত্যা করা হয় আশিক ইমরান নামের এক যুবককে। ঘটনার ২৪ ঘন্টার মধ্যে রাজিকুল ইসলাম রুবেল তার স্ত্রী জাকিয়া সুলতানাকে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ। ক্লু লেস প্রতিটি হত্যাকান্ডের আসামীকে দ্রুত গ্রেফতার ও ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিতে সক্ষম হয় থানা পুলিশ। এছাড়া চলতি মাসে থানা পুলিশ জি আর ও সি আর ৭৬ টি ওয়ারেন্ট, ৩ টি সাজা নিষ্পত্তি করতে সক্ষম হয়। এমাসে ১৪ টি মাদক মামলায় ২৫ জন মাদক ব্যাবসায়ীকে গ্রেফতার করে কোর্টে সোপর্দ করে থানা পুলিশ। উদ্ধার হয় ১১০ পিস ইয়াবা, ১ কেজি ৭০০ গ্রাম গাঁজা, ২৩ পিস নেশা জাতীয় ইনজেকশন, ৪ বোতল বিদেশি মদ । এছাড়াও এমাসে দুটি ছিনতাই মামলায় ৫ আসামীকে গ্রেফতার, ৪ টি চুরি মামলায় গ্যাস সিলিন্ডার উদ্ধার করে থানা পুলিশ।

 

 

কোতোয়ালী পুলিশের তৎপরতায় জেলা সদরে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির এমন পরিবর্তনকে সাধুবাদ জানিয়ে একজন অপরাধ বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন, একটি এলাকা বা জেলায় সাধারণ জনগণ যখন অপরাধ প্রবণতার কারণ অপরাধ থেকে বিরত থাকে তখনই সার্বিক উন্নতি ঘটে। সমাজের সাথে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সমন্বয় ও দক্ষ নেতৃত্বের বাস্তবায় ঘটলে এমন পরিবর্তন সম্ভব। নির্দিষ্ট একটি কারণের অবনতি ঘটলে সার্বিক আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতি চিহ্নিত করা অযৌক্তিক মনে করে বিশেষজ্ঞরা।

Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com