বিকাল ৪:০৬ | রবিবার | ২রা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৭ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পরিচ্ছন্নতায় মেয়রের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের চ্যালেঞ্জ নিয়েছে বর্জ ব্যবস্থাপনা বিভাগ

মোঃ কামাল, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ময়মনসিংহ নগরী জলযট মুক্ত,পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন সিটি মেয়র ইকরামুল হক টিটু। এবার বর্ষায় নগরীতে ময়লা আবর্জনার কারণে মশার বৃদ্ধি হতে দেয়া হবেনা। মশাবাহিত রোগ ডেঙ্গু, চিকুন গুনিয়ার কারনে একটি প্রাণকেও ঝরে যেতে দেয়া হবে না।

 

 

সিটি মেয়রের এই প্রতিশ্রুতিকে চ্যালেঞ্জ হিসাবে নিয়ে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার যুদ্ধে নেমেছে বর্জ ব্যবস্থাপনা বিভাগ। নগরীর সকল ড্রেন, খাল বিল খনন অভিযান চলছে একযোগে। সিটি করপোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা মোহাব্বত আলীর নেতৃত্বে নগরীর ৫ লাখ মানুষকে নিরাপদ রাখতে ৮শ পরিচ্ছন্নতা কর্মী কাজ করছে দিবা রাত্রি। পুরাতন শহরের ২১ টি ও নতুন ১২টি ওয়ার্ডের সকল ড্রেনেজগুলো এক্ষেত্রে অভিযানের আওতায় এসেছে।

প্রতিটি ওয়ার্তে ১৯ জন করে পরিচ্ছন্নতা কর্মী কাজ করছে। ফগার মেশিন প্রস্তুত হচ্ছে  মশার প্রজনন ক্ষেত্র বিনষ্ট করতে। বিশ্বজুড়ে করোনার আতংক বাংলাদেশেও আঘাত হেনেছে। এরই মধ্যে বর্ষা মৌসুম আগত। বর্ষায় বিশেষ করে এডিস মশার বিস্তার ঘটে। যেটি নগরবাসারীর জন্য আরেক আতংকের নাম ডেঙ্গু। ডেঙ্গু প্রতিরোধে একমাত্র সমাধান পরিচ্ছন্নতা ও জলাশয়গুলোতে মশারা প্রজনন বিনষ্ট করা।

এক্ষেত্র নাগরিকদের সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়ে মেয়র টিটু। তিনি বলেন, সুস্থ থাকতে হলে যার যার অবস্থান থেকে এ নিয়ে কাজ করতে হবে। নিজ নিজ বাড়ির আঙ্গিনা নিজেদের সবসময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। মশার প্রজননস্থলকে ধ্বংস করতে হবে। সকল নাগরিক যদি সিটি করপোরেশনকে সহযোগিতা করেন তাহলে ডেঙ্গু, চিকুন গুনিয়ার মতো সকল মহামারিমুক্ত ময়মনসিংহ নগরী গড়া সম্ভব।’

ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা মোহাব্বত আলী বলেন, নগরীতে লাখ লাখ মানুষের বসবাস। প্রতিটি মহল্লায় হাজার হাজার বাড়িঘর। অলিগলিতে রয়েছে ড্রেনেজ ও পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা। ড্রেনেজগুলো পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকলে মশা বা জীবানু সংক্রমন হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে। আমরা পরিস্কার পরিচ্ছন্নতায় নিয়োজিত কর্মীরা নিজেদের সবটুকু শক্তি কাজে লাগিয়ে দিয়েছি। অপরিস্কার ও অপরিচ্ছন্নতার কারনে ঘটা নাগরিক ঝুকিকে কমাতে আমরা পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার যুদ্ধে নেমেছি।

 

 

তিনি বলেন, নগর পিতা সিটি মেয়র ইকরামুল হক টিটুর সার্বিক নির্দেশনা ও পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে বর্জ ব্যবস্থাপনা বিভাগ বদ্ধপরিকর। এ লক্ষ্যে ইতিমধ্যেই আমরা নগরীর প্রধান প্রধান খাল, ড্রেনেজ, কারভালহ ছোট বড় ডোবা নালা পরিস্কার পরিচ্ছন্নতায় কাজ করছি। এবার বর্ষা মৌসুমের আগেই সকল পয়ঃনিষ্কাশন ড্রেনগুলোতে অবাধ পানি চলাচল নিশ্চিত করা হচ্ছে। যাতে করে কোথাও পানি আটকে জলযট সৃষ্টি না হয়। এছাড়া সকল ওয়ার্ডগুলোতে নিয়োজিত পরিস্কার কর্মীরা প্রতিদিনের ময়লা আর্বজনা প্রতিনিয়ত পরিস্কার করছে।

 

 

বর্জ ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা বলেন, নগরের বেশির ভাগ নির্মাণ সামগ্রী রাখা হয় রাস্তার উপর। ওই সব সামগ্রী ড্রেনে পরে ড্রেন ভরাট হচ্ছে। অন্যদিকে ভবণ নির্মাণে পাইলিং করা মাটিগুলো ড্রেনে ফেলা হচ্ছে। যা পরে পানি চলাচলে বাধার সৃষ্টি করছে। এক্ষেত্রে নগারীকদেরও সচেতন হতে হবে। যেখানে সেখানে এসব সামগ্রী রেখে জলযট সৃষ্টি করা যাবে না। গৃহস্থালি বর্জ নির্দিষ্ট স্থানে রাখতে হবে। এলাকাভিত্তিক নিয়োজিত পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের কাছে ময়লা আবর্জনা তুলে দিতে হবে। সর্বপরি আমরা সকলে সচেতন হলে সকল মহামারি প্রতিরোধ করতে সক্ষম হবো।

Print Friendly, PDF & Email

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» যুবলীগ চেয়ারম্যানের রোগমুক্তি কামনায় ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগের দোয়া মাহফিল

» দেশরত্ন শেখ হাসিনার জন্মদিনে এতিমদের মাঝে ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগের খাবার বিতরণ

» জিডি ও মামলায় ১২ ঘন্টার মধ্যে ঘটনাস্থলে পুলিশ- নবাগত এসপি মাছুম আহাম্মদের প্রতিশ্রুতি

» প্রিয়াংকাকে আহবায়ক করে ময়মনসিংহ মহানগর যুবমহিলা লীগের কমিটি ঘোষনা

» সুসংগঠিত সাংগঠনিক শক্তির বিকল্প নেই- ময়মনসিংহে শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল

» সাংগঠনিক ব্যাক্তিত্ব নির্বাচন করে নেতৃত্বে আনা হবে-ময়মনসিংহ মহানগর ওয়ার্ড সম্মেলনে বক্তারা

» শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে ময়মনসিংহ যুবলীগের বর্ণাঢ্য র‍্যালী

» নেত্রকোনায় কোটি টাকার জুয়ার আসর সেহরি করিয়ে বিদায়; পুলিশ ম্যানেজ!

» গৌরীপুরে সরকারি সম্পত্তির শত শত ট্রাক মাটি কেটে সাবাড় করছে আ’লীগ নেতার ছেলে !  

» ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে মঞ্চ কাঁপালেন এলিজা

» শিক্ষকের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগে মমেক ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদকসহ ১০ শিক্ষার্থী বহিস্কার

» ময়মনসিংহ মহানগর যুবলীগের প্রতিবাদ মিছিল ও সমাবেশ

» সাম্প্রদায়িকতা রুখবে সংস্কৃতি

» যুবলীগকে মাঠে নামতে বাধ্য করবেন না- বিএনপিকে এড.আজহারুল ইসলামের হুশিয়ারী

» মতিউর রহমানকে “একুশে পদক” প্রদান করায় শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়ে আনন্দের বণ্যা

আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com

,

basic-bank

পরিচ্ছন্নতায় মেয়রের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের চ্যালেঞ্জ নিয়েছে বর্জ ব্যবস্থাপনা বিভাগ

মোঃ কামাল, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ময়মনসিংহ নগরী জলযট মুক্ত,পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন সিটি মেয়র ইকরামুল হক টিটু। এবার বর্ষায় নগরীতে ময়লা আবর্জনার কারণে মশার বৃদ্ধি হতে দেয়া হবেনা। মশাবাহিত রোগ ডেঙ্গু, চিকুন গুনিয়ার কারনে একটি প্রাণকেও ঝরে যেতে দেয়া হবে না।

 

 

সিটি মেয়রের এই প্রতিশ্রুতিকে চ্যালেঞ্জ হিসাবে নিয়ে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার যুদ্ধে নেমেছে বর্জ ব্যবস্থাপনা বিভাগ। নগরীর সকল ড্রেন, খাল বিল খনন অভিযান চলছে একযোগে। সিটি করপোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা মোহাব্বত আলীর নেতৃত্বে নগরীর ৫ লাখ মানুষকে নিরাপদ রাখতে ৮শ পরিচ্ছন্নতা কর্মী কাজ করছে দিবা রাত্রি। পুরাতন শহরের ২১ টি ও নতুন ১২টি ওয়ার্ডের সকল ড্রেনেজগুলো এক্ষেত্রে অভিযানের আওতায় এসেছে।

প্রতিটি ওয়ার্তে ১৯ জন করে পরিচ্ছন্নতা কর্মী কাজ করছে। ফগার মেশিন প্রস্তুত হচ্ছে  মশার প্রজনন ক্ষেত্র বিনষ্ট করতে। বিশ্বজুড়ে করোনার আতংক বাংলাদেশেও আঘাত হেনেছে। এরই মধ্যে বর্ষা মৌসুম আগত। বর্ষায় বিশেষ করে এডিস মশার বিস্তার ঘটে। যেটি নগরবাসারীর জন্য আরেক আতংকের নাম ডেঙ্গু। ডেঙ্গু প্রতিরোধে একমাত্র সমাধান পরিচ্ছন্নতা ও জলাশয়গুলোতে মশারা প্রজনন বিনষ্ট করা।

এক্ষেত্র নাগরিকদের সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়ে মেয়র টিটু। তিনি বলেন, সুস্থ থাকতে হলে যার যার অবস্থান থেকে এ নিয়ে কাজ করতে হবে। নিজ নিজ বাড়ির আঙ্গিনা নিজেদের সবসময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। মশার প্রজননস্থলকে ধ্বংস করতে হবে। সকল নাগরিক যদি সিটি করপোরেশনকে সহযোগিতা করেন তাহলে ডেঙ্গু, চিকুন গুনিয়ার মতো সকল মহামারিমুক্ত ময়মনসিংহ নগরী গড়া সম্ভব।’

ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা মোহাব্বত আলী বলেন, নগরীতে লাখ লাখ মানুষের বসবাস। প্রতিটি মহল্লায় হাজার হাজার বাড়িঘর। অলিগলিতে রয়েছে ড্রেনেজ ও পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা। ড্রেনেজগুলো পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকলে মশা বা জীবানু সংক্রমন হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে। আমরা পরিস্কার পরিচ্ছন্নতায় নিয়োজিত কর্মীরা নিজেদের সবটুকু শক্তি কাজে লাগিয়ে দিয়েছি। অপরিস্কার ও অপরিচ্ছন্নতার কারনে ঘটা নাগরিক ঝুকিকে কমাতে আমরা পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার যুদ্ধে নেমেছি।

 

 

তিনি বলেন, নগর পিতা সিটি মেয়র ইকরামুল হক টিটুর সার্বিক নির্দেশনা ও পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে বর্জ ব্যবস্থাপনা বিভাগ বদ্ধপরিকর। এ লক্ষ্যে ইতিমধ্যেই আমরা নগরীর প্রধান প্রধান খাল, ড্রেনেজ, কারভালহ ছোট বড় ডোবা নালা পরিস্কার পরিচ্ছন্নতায় কাজ করছি। এবার বর্ষা মৌসুমের আগেই সকল পয়ঃনিষ্কাশন ড্রেনগুলোতে অবাধ পানি চলাচল নিশ্চিত করা হচ্ছে। যাতে করে কোথাও পানি আটকে জলযট সৃষ্টি না হয়। এছাড়া সকল ওয়ার্ডগুলোতে নিয়োজিত পরিস্কার কর্মীরা প্রতিদিনের ময়লা আর্বজনা প্রতিনিয়ত পরিস্কার করছে।

 

 

বর্জ ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা বলেন, নগরের বেশির ভাগ নির্মাণ সামগ্রী রাখা হয় রাস্তার উপর। ওই সব সামগ্রী ড্রেনে পরে ড্রেন ভরাট হচ্ছে। অন্যদিকে ভবণ নির্মাণে পাইলিং করা মাটিগুলো ড্রেনে ফেলা হচ্ছে। যা পরে পানি চলাচলে বাধার সৃষ্টি করছে। এক্ষেত্রে নগারীকদেরও সচেতন হতে হবে। যেখানে সেখানে এসব সামগ্রী রেখে জলযট সৃষ্টি করা যাবে না। গৃহস্থালি বর্জ নির্দিষ্ট স্থানে রাখতে হবে। এলাকাভিত্তিক নিয়োজিত পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের কাছে ময়লা আবর্জনা তুলে দিতে হবে। সর্বপরি আমরা সকলে সচেতন হলে সকল মহামারি প্রতিরোধ করতে সক্ষম হবো।

Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com