রাত ১১:১৪ | রবিবার | ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ব্যাংকগুলোকে সুবিধা দিতে ক্রেডিট কার্ড নীতিমালায় সংশোধনী

ঢাকা: অবশেষে ক্রেডিট কার্ড নীতিমালায় সংশোধনী আনল বাংলাদেশ ব্যাংক। এ ক্ষেত্রে এ সেবায় সুদের সর্বোচ্চ হার নির্ধারণের পদ্ধতিতে পরিবর্তন আনা হয়েছে।

ফলে ব্যাংকগুলো ভোক্তা ঋণ নয়, অন্য যেকোনো ঋণের সর্বোচ্চ সুদের সঙ্গে ৫ শতাংশ সুদ যোগ করে ক্রেডিট কার্ডের সুদহার নির্ধারণের সুযোগ পাবে। এতে এর সুদহার আগের চেয়ে বাড়বে।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ এক সার্কুলারে ক্রেডিট কার্ড নীতিমালায় সংশোধন আনার কথা জানিয়েছে। যা দেশের সব তফসিলি ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো হয়েছে।

সংশোধিত নীতিমালায় আরও বলা হয়েছে, বৈদেশিক মুদ্রা বা দ্বৈত মুদ্রায় সাপ্লিমেন্টারি কার্ড ইস্যু করার বিষয়ে আরোপিত নিষেধাজ্ঞাও তুলে নেয়া হয়েছে। একইসঙ্গে নীতিমালাটি বাস্তবায়নের সময়সীমায়ও ছাড় দেয়া হয়েছে। ফলে প্রায় আড়াই মাস আগে জারি হওয়া নীতিমালাটি আগামী বছরের জানুয়ারি থেকে কার্যকর হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে আরও জানা গেছে, ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড ব্যবসার স্বচ্ছ ও সুষ্ঠু পরিচালনা এবং এ সেবার ঝুঁকিগুলো আরও কার্যকর ও ফলপ্রসূভাবে মোকাবেলা এবং গ্রাহক স্বার্থ রক্ষার্থে গত ১১ মে ক্রেডিট কার্ড সেবা সংক্রান্ত নীতিমালা জারি করে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এতে বলা হয়- ভোক্তা ঋণের যে সুদহার রয়েছে, তার চেয়ে সর্বোচ্চ ৫ শতাংশ বেশি হতে পারবে ক্রেডিট কার্ডের সুদহার। বর্তমানে ব্যাংকগুলোতে ভোক্তা ঋণের সুদহার সর্বোচ্চ ১২ শতাংশ।

সেই হিসাবে ক্রেডিট কার্ডে সর্বোচ্চ সুদহার হতো ১৭ শতাংশ। কিন্তু ভোক্তা ঋণের সর্বোচ্চ সুদহারের সঙ্গে এ সেবার সুদহার নির্ধারণের বিষয়ে আপত্তি জানায় বেসরকারি খাতের দ্য সিটি, ব্র্যাক ও ইস্টার্ন ব্যাংক এবং বিদেশি খাতের স্টান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক।

এ বিষয়ে ব্যাংকগুলোর পক্ষ থেকে বলা হয়, ক্রেডিট কার্ডে ঋণ সেবাটি ব্যাংকের অন্যান্য সেবার মতো নয়। জামানতবিহীন ঋণ হওয়ায় এ ক্ষেত্রে খেলাপির ঝুঁকি অনেক বেশি। কিছু গ্রাহক ক্রেডিট কার্ডে টাকা ঋণ নিয়ে ওই কার্ড আর ব্যবহার করেন না। ফলে এ সেবার গ্রাহকদের নিবিড়ভাবে তত্ত্বাবধান করতে হয়। তাছাড়া পৃথিবীর অন্যান্য দেশেও ক্রেডিট কার্ডে ঋণের সুদহার বেশি।

এমন যুক্তি তুলে ধরে ব্যাংকের যেকোনো ঋণের সর্বোচ্চ সুদের সঙ্গে ৫ শতাংশ সুদ যোগ করে ক্রেডিট কার্ডের সুদহার নির্ধারণের দাবি জানান তারা। আগের নীতিমালায় বৈদেশিক মুদ্রায় বা দ্বৈত মুদ্রায় সাপ্লিমেন্টারি কার্ড ইস্যু করার বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়।

এতে ক্রেডিট কার্ডের ব্যবসায় নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে বলে ব্যাংকগুলোর পক্ষ থেকে আশঙ্কা প্রকাশ করে এ নিষেধাজ্ঞা তুলে দেয়ার দাবি জানানো হয়। সংশোধিত নীতিমালায় এ নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» দুঃসময়ের ত্যাগী নেতৃত্বের হাতেই থাকবে আগামী আওয়ামী লীগ- ময়মনসিংহে বাহাউদ্দিন নাছিম

» শেখ রেহেনার জন্মদিনে ময়মনসিংহ সদর উপজেলা যুবলীগের উদ্যোগে মিলাদ ও দোয়া

» বাহাউদ্দিন নাসিম এর আগমন উপলক্ষে  ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

» কথা ক্লিয়ার-শিক্ষিত,ক্লিন ইমেজ যুবকদের জন্য অবারিত যুবলীগ- কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক খসরু

» ময়মনসিংহ জেলা ও মহানগর যুবলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে

» ময়মনসিংহ মহানগরী জু্ড়ে শোক আয়োজনে মোহিত উর রহমান শান্ত

» শোক দিবসে যুবলীগনেতা সব্যসাচীর উদ্যেগে অসহায়দের মাঝে বস্ত্র বিতরণ ও গণভোজ

» ১৫ আগস্ট পালন উপলক্ষে ময়মনসিংহ মহানগর সাধারণ সম্পাদকের মতবিনিময় সভা

» ময়মনসিংহে মহানগর যুবলীগের উদ্যোগে মাসব্যাপী রেশনিং সিস্টেমে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

» শর্ত সাপেক্ষে খুলে দেয়া হয়েছে জেলা স্কুল মোড়ের সেই ত্রুটিপূর্ণ ১৪ তলা ভবন

» সংসার ফিরে পেতে চায় ময়মনসিংহের ডাক্তার জান্নাতুল   

» নগর জুড়ে ময়মনসিংহ মহানগর সাধারণ সম্পাদকের ইফতার বিতরণ

» প্রধানমন্ত্রীর উপহার প্রাপ্যদের হাতে তুলে দিচ্ছেন ময়মনসিংহের ডিসি এনামুল হক

» ময়মনসিংহে অসহায় কৃষকের ধান কেটে ঘরে পৌছে দিলো ছাত্রলীগ নেতা টুটুল

» ময়মনসিংহ টিসিএ’র সভাপতি নুরুজ্জামান সম্পাদক দেলোয়ার 

আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com

,

basic-bank

ব্যাংকগুলোকে সুবিধা দিতে ক্রেডিট কার্ড নীতিমালায় সংশোধনী

ঢাকা: অবশেষে ক্রেডিট কার্ড নীতিমালায় সংশোধনী আনল বাংলাদেশ ব্যাংক। এ ক্ষেত্রে এ সেবায় সুদের সর্বোচ্চ হার নির্ধারণের পদ্ধতিতে পরিবর্তন আনা হয়েছে।

ফলে ব্যাংকগুলো ভোক্তা ঋণ নয়, অন্য যেকোনো ঋণের সর্বোচ্চ সুদের সঙ্গে ৫ শতাংশ সুদ যোগ করে ক্রেডিট কার্ডের সুদহার নির্ধারণের সুযোগ পাবে। এতে এর সুদহার আগের চেয়ে বাড়বে।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ এক সার্কুলারে ক্রেডিট কার্ড নীতিমালায় সংশোধন আনার কথা জানিয়েছে। যা দেশের সব তফসিলি ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো হয়েছে।

সংশোধিত নীতিমালায় আরও বলা হয়েছে, বৈদেশিক মুদ্রা বা দ্বৈত মুদ্রায় সাপ্লিমেন্টারি কার্ড ইস্যু করার বিষয়ে আরোপিত নিষেধাজ্ঞাও তুলে নেয়া হয়েছে। একইসঙ্গে নীতিমালাটি বাস্তবায়নের সময়সীমায়ও ছাড় দেয়া হয়েছে। ফলে প্রায় আড়াই মাস আগে জারি হওয়া নীতিমালাটি আগামী বছরের জানুয়ারি থেকে কার্যকর হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে আরও জানা গেছে, ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড ব্যবসার স্বচ্ছ ও সুষ্ঠু পরিচালনা এবং এ সেবার ঝুঁকিগুলো আরও কার্যকর ও ফলপ্রসূভাবে মোকাবেলা এবং গ্রাহক স্বার্থ রক্ষার্থে গত ১১ মে ক্রেডিট কার্ড সেবা সংক্রান্ত নীতিমালা জারি করে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এতে বলা হয়- ভোক্তা ঋণের যে সুদহার রয়েছে, তার চেয়ে সর্বোচ্চ ৫ শতাংশ বেশি হতে পারবে ক্রেডিট কার্ডের সুদহার। বর্তমানে ব্যাংকগুলোতে ভোক্তা ঋণের সুদহার সর্বোচ্চ ১২ শতাংশ।

সেই হিসাবে ক্রেডিট কার্ডে সর্বোচ্চ সুদহার হতো ১৭ শতাংশ। কিন্তু ভোক্তা ঋণের সর্বোচ্চ সুদহারের সঙ্গে এ সেবার সুদহার নির্ধারণের বিষয়ে আপত্তি জানায় বেসরকারি খাতের দ্য সিটি, ব্র্যাক ও ইস্টার্ন ব্যাংক এবং বিদেশি খাতের স্টান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক।

এ বিষয়ে ব্যাংকগুলোর পক্ষ থেকে বলা হয়, ক্রেডিট কার্ডে ঋণ সেবাটি ব্যাংকের অন্যান্য সেবার মতো নয়। জামানতবিহীন ঋণ হওয়ায় এ ক্ষেত্রে খেলাপির ঝুঁকি অনেক বেশি। কিছু গ্রাহক ক্রেডিট কার্ডে টাকা ঋণ নিয়ে ওই কার্ড আর ব্যবহার করেন না। ফলে এ সেবার গ্রাহকদের নিবিড়ভাবে তত্ত্বাবধান করতে হয়। তাছাড়া পৃথিবীর অন্যান্য দেশেও ক্রেডিট কার্ডে ঋণের সুদহার বেশি।

এমন যুক্তি তুলে ধরে ব্যাংকের যেকোনো ঋণের সর্বোচ্চ সুদের সঙ্গে ৫ শতাংশ সুদ যোগ করে ক্রেডিট কার্ডের সুদহার নির্ধারণের দাবি জানান তারা। আগের নীতিমালায় বৈদেশিক মুদ্রায় বা দ্বৈত মুদ্রায় সাপ্লিমেন্টারি কার্ড ইস্যু করার বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়।

এতে ক্রেডিট কার্ডের ব্যবসায় নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে বলে ব্যাংকগুলোর পক্ষ থেকে আশঙ্কা প্রকাশ করে এ নিষেধাজ্ঞা তুলে দেয়ার দাবি জানানো হয়। সংশোধিত নীতিমালায় এ নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com