বিকাল ৩:৪৭ | শনিবার | ৪ঠা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ২১শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মুক্তাগাছায় ছাগল পেপে গাছ খাওয়াকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের আঘাতে যুবক নিহত

বিল্লাল হোসেন প্রান্তঃ

ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলার পল্লী এলাকায় ছাগলে পেপে গাছ খাওয়াকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের সাবালের আঘাতে সোহেল (৩৫) নামে এক যুবক নিহত হয়েছে। এতে আহত হয় আরও চারজন। আহতরা হলেন, মাওলানা ফয়জুর রহমান সুরুজ, দেলোয়ার হোসেন, শফিকুল ইসলাম,হাফিজুর রহমান।

 

 

এ ঘটনায় নিহত সোহেলের বড় ভাই মাওলানা ফয়জুর রহমান সুরুজ বাদি হয়ে মুক্তাগাছা থানায় আঃ সামাদ বাদলকে প্রধান আসামিসহ ৫ জনের নাম উল্লেখ পূর্বক ৪/৫ অজ্ঞাত আসামি করে মামলা দায়ের করেন। আসামিরা হলেন, মকবুল হোসেন, তার তিন ছেলে আব্দুস সামাদ বাদল, মাসুদ ও বাবুল, হোসনে আরা স্বামী আব্দুস সামাদ বাদল।

 

 

রবিবার (২৮ জুন) দুপুরে পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মমেক হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এর আগে শনিবার বিকেলে উপজেলার খেরুয়াজানি ইউনিয়নের ঘরবাজাইল গ্রামে এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে। গ্রামটিতে আতংকাবস্থা বিরাজ করছে। হত্যাকান্ডের পর থেকেই আসামিরা বাড়িঘর ছেলে পলাতক বলে গ্রামবাসী জানায়।

 

 

নিহতের স্বজনরা অভিযোগ করে বলেন, গত শুক্রবার প্রতিবেশী বাদলের একটি পেঁপে গাছ খায় সোহেলের ছাগল। পরে ওই ছাগলেকে বাদলের স্ত্রী খোয়ারে দিয়ে আসে। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। শুক্রবারের কথা কাটাকাটির জেরে শনিবার পূর্ব পরিকল্পিতভাবে হামলা চালিয়ে সোহেলসহ তার পরিবারের ৫ জনকে দেশীয় অস্ত্রের আঘাতে আহত করে। পরেরদিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোহেল মৃত্যু বরণ করে।

প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়িতে ফিরে আসা নিহত সোহেলের বড় ভাই মাওলানা ফয়জুর রহমান সুরুজ বলেন, বাদলের পরিবারটি এই গ্রামে সব সময়েই বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে থাকে। তুচ্ছ একটি ঘটনাকে নিয়ে আজ আমার ভাইকে তারা খুন করে ফেলেছে।

 

 

তিনি এ হত্যাকান্ডের তদন্তপূর্ক সঠিক বিচার দাবি করে বলেন, বাদল ও তার স্ত্রী শুক্রবার বাকবিতন্ডার সময়ই সোহেলকে হত্যার হুমকি দেয়। এ ঘটনায় শনিবার দুপুরে সোহেল মুক্তাগাছা থানায় জিডি করতে বাড়ি থেকে বের হলে রাস্তায় বাদল,তার স্ত্রীসহ লোকজন অতর্কিত হামলা চালায়। সোহেলের মাথায় সাবাল দিয়ে আঘাত করে তাকে গুরতর আহত করে। পরে তার মৃত্যু হয়।

 

 

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী মোঃ কাউসার আলী বলেন, আমি ঘাস কাটছিলাম দেখলাম কিছু লোক সাবাল, কোচ, রামদা নিয়ে সোহেলসহ তার ভাইকে মারছে। আমি আসতে আসতে সোহেল মাটিতে পড়ে গেল। তার শরীর দিয়ে রক্ত পড়ছে। এসময় আমি বাদল ও সোহেলের ভাইদের দুই দিকে সড়িয়ে দেই। পরে এলাকাবাসীদের সহায়তায় সোহেলসহ আহতদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে প্রেরন করা হয়। বিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোহেলের মৃত্যু হয়।

 

 

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মুক্তাগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ বিপ্লব কুমার বিশ্বাস বলেন, ছাগল পেঁপে গাছ খেয়েছে এমন ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঝগড়া হয়। এনিয়ে মারামারির এক পর্যায়ে একজন খুন হয়েছে। এঘটনায় মামলা হয়েছে। মামলার আসামি বাদলের পিতা মকবুল হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানান ওসি।

Print Friendly, PDF & Email

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» ময়মনসিংহে রাতের আঁধারে মোহিত উর রহমান শান্তর প্যানায় রং দিয়ে নষ্ট করেছে দুর্বৃত্তরা!

» সোহরাওয়ার্দীর যুব সমুদ্রে ময়মনসিংহ যুবলীগ

» মেঘনা গ্রুপে ডাকাতি; ৮ ডাকাত গ্রেফতার, ৪ হাজার লিটার তেল উদ্ধার ; কোতোয়ালী পুলিশের সফল অভিযান

» ময়মনসিংহে নাশকতার দায়ে জামায়াতের ১৯ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে কোতোয়ালী পুলিশ

» বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট মেম্বার হলেন সাবেক ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান

» যুবলীগ চেয়ারম্যানের রোগমুক্তি কামনায় ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগের দোয়া মাহফিল

» দেশরত্ন শেখ হাসিনার জন্মদিনে এতিমদের মাঝে ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগের খাবার বিতরণ

» জিডি ও মামলায় ১২ ঘন্টার মধ্যে ঘটনাস্থলে পুলিশ- নবাগত এসপি মাছুম আহাম্মদের প্রতিশ্রুতি

» প্রিয়াংকাকে আহবায়ক করে ময়মনসিংহ মহানগর যুবমহিলা লীগের কমিটি ঘোষনা

» সুসংগঠিত সাংগঠনিক শক্তির বিকল্প নেই- ময়মনসিংহে শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল

» সাংগঠনিক ব্যাক্তিত্ব নির্বাচন করে নেতৃত্বে আনা হবে-ময়মনসিংহ মহানগর ওয়ার্ড সম্মেলনে বক্তারা

» শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে ময়মনসিংহ যুবলীগের বর্ণাঢ্য র‍্যালী

» নেত্রকোনায় কোটি টাকার জুয়ার আসর সেহরি করিয়ে বিদায়; পুলিশ ম্যানেজ!

» গৌরীপুরে সরকারি সম্পত্তির শত শত ট্রাক মাটি কেটে সাবাড় করছে আ’লীগ নেতার ছেলে !  

» ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে মঞ্চ কাঁপালেন এলিজা

আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com

,

basic-bank

মুক্তাগাছায় ছাগল পেপে গাছ খাওয়াকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের আঘাতে যুবক নিহত

বিল্লাল হোসেন প্রান্তঃ

ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলার পল্লী এলাকায় ছাগলে পেপে গাছ খাওয়াকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের সাবালের আঘাতে সোহেল (৩৫) নামে এক যুবক নিহত হয়েছে। এতে আহত হয় আরও চারজন। আহতরা হলেন, মাওলানা ফয়জুর রহমান সুরুজ, দেলোয়ার হোসেন, শফিকুল ইসলাম,হাফিজুর রহমান।

 

 

এ ঘটনায় নিহত সোহেলের বড় ভাই মাওলানা ফয়জুর রহমান সুরুজ বাদি হয়ে মুক্তাগাছা থানায় আঃ সামাদ বাদলকে প্রধান আসামিসহ ৫ জনের নাম উল্লেখ পূর্বক ৪/৫ অজ্ঞাত আসামি করে মামলা দায়ের করেন। আসামিরা হলেন, মকবুল হোসেন, তার তিন ছেলে আব্দুস সামাদ বাদল, মাসুদ ও বাবুল, হোসনে আরা স্বামী আব্দুস সামাদ বাদল।

 

 

রবিবার (২৮ জুন) দুপুরে পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মমেক হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এর আগে শনিবার বিকেলে উপজেলার খেরুয়াজানি ইউনিয়নের ঘরবাজাইল গ্রামে এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে। গ্রামটিতে আতংকাবস্থা বিরাজ করছে। হত্যাকান্ডের পর থেকেই আসামিরা বাড়িঘর ছেলে পলাতক বলে গ্রামবাসী জানায়।

 

 

নিহতের স্বজনরা অভিযোগ করে বলেন, গত শুক্রবার প্রতিবেশী বাদলের একটি পেঁপে গাছ খায় সোহেলের ছাগল। পরে ওই ছাগলেকে বাদলের স্ত্রী খোয়ারে দিয়ে আসে। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। শুক্রবারের কথা কাটাকাটির জেরে শনিবার পূর্ব পরিকল্পিতভাবে হামলা চালিয়ে সোহেলসহ তার পরিবারের ৫ জনকে দেশীয় অস্ত্রের আঘাতে আহত করে। পরেরদিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোহেল মৃত্যু বরণ করে।

প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়িতে ফিরে আসা নিহত সোহেলের বড় ভাই মাওলানা ফয়জুর রহমান সুরুজ বলেন, বাদলের পরিবারটি এই গ্রামে সব সময়েই বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে থাকে। তুচ্ছ একটি ঘটনাকে নিয়ে আজ আমার ভাইকে তারা খুন করে ফেলেছে।

 

 

তিনি এ হত্যাকান্ডের তদন্তপূর্ক সঠিক বিচার দাবি করে বলেন, বাদল ও তার স্ত্রী শুক্রবার বাকবিতন্ডার সময়ই সোহেলকে হত্যার হুমকি দেয়। এ ঘটনায় শনিবার দুপুরে সোহেল মুক্তাগাছা থানায় জিডি করতে বাড়ি থেকে বের হলে রাস্তায় বাদল,তার স্ত্রীসহ লোকজন অতর্কিত হামলা চালায়। সোহেলের মাথায় সাবাল দিয়ে আঘাত করে তাকে গুরতর আহত করে। পরে তার মৃত্যু হয়।

 

 

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী মোঃ কাউসার আলী বলেন, আমি ঘাস কাটছিলাম দেখলাম কিছু লোক সাবাল, কোচ, রামদা নিয়ে সোহেলসহ তার ভাইকে মারছে। আমি আসতে আসতে সোহেল মাটিতে পড়ে গেল। তার শরীর দিয়ে রক্ত পড়ছে। এসময় আমি বাদল ও সোহেলের ভাইদের দুই দিকে সড়িয়ে দেই। পরে এলাকাবাসীদের সহায়তায় সোহেলসহ আহতদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে প্রেরন করা হয়। বিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোহেলের মৃত্যু হয়।

 

 

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মুক্তাগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ বিপ্লব কুমার বিশ্বাস বলেন, ছাগল পেঁপে গাছ খেয়েছে এমন ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঝগড়া হয়। এনিয়ে মারামারির এক পর্যায়ে একজন খুন হয়েছে। এঘটনায় মামলা হয়েছে। মামলার আসামি বাদলের পিতা মকবুল হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানান ওসি।

Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com