রাত ১১:২৩ | রবিবার | ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

স্বাধীনতা বিরোধীরা যেন তোমাদের কাছে ঠাই না পায়-মিন্টু কলেজে মোহিত উর রহমান শান্ত

বিল্লাল হোসেন প্রান্ত ॥
আমি আজকে তোমাদের কাছে একটি মিনতি করে যাই তোমরা যে যেখানেই দাড়িয়ে থাকো না কেন, সমাজের যেখানেই তোমাদের অবস্থান হোক বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিরোধীরা যেন তোমাদের কাছে ঠাই না পায়। কথাগুলো বলেছেন ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্ত।
শনিবার ১৬ ডিসেম্বর সকালে মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে আলমগীর মনসুর মিন্টু মেমোরিয়াল কলেজ ক্যাম্পাসে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তবে রাখেন তিনি ।
কলেজ অধ্যক্ষ নীহার রঞ্জন রায় এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগ আহবায়ক এড. আজহারুল ইসলাম, ময়মনসিংহ মহিলা ডিগ্রী কলেজ অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার। মঞ্চে আরও উপস্থিত ছিলেন প্রস্তাবিত মহানগর আওয়ামী লীগ আইন বিষয়ক সম্পাদক এড. তাজুল ইসলাম খোকন, জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক সরকার মো: সব্যসাচী। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ডা: ফাতেমা তুজ জোহুরা পিয়া প্রমুখ।


ইংরেজ শাসন আমল থেকে দীর্ঘ পথ পরিক্রমায় সবশেষ ২৫ শে মার্চ থেকে ১৬ ডিসেম্বর পূর্ণ বিজয় এর সংক্ষিপ্ত পটভূমি তুলে ধরে মোহিত উর রহমান শান্ত বলেন, তোমরা একটি ভাগ্যবান প্রজন্ম। কারণ এ প্রজন্মকে যারা লালন করো তারা বাংলাদেশের সঠিক ইতিহাসটা জানতে পেরেছ।
তিনি বলেন, আমরা যখন ছোট ছিলাম সঠিক ইতিহাসটা জানতে পারিনি। বাংলাদেশের কোথাও কোন পাঠ্যপুস্তকে আমাদের মুক্তিযোদ্ধের সঠিক ইতিহাসটা প্রকাশ করা হয়নি সে সময়।
মোহিত উর রহমান শান্ত বলেন, তোমরা যারা এই প্রজন্ম তোমারা ভাগ্যবান। তোমাদের সময় বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় মুক্তিযুদ্ধের চেতনার শক্তি আসিন রয়েছে। আমাদের শৈশব কৈশরে মুক্তিযুদ্ধের বিরোধীরা এই রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় ছিল। তারা আমাদের জানতে দেয়নি রাষ্ট্রের জন্মের পেছনে কার কতটা অবদান।
শান্ত বলেন, তারা আমাদেরকে জানতে দেয়নি রাষ্ট্রকে জন্ম দিতে গিয়ে কারা কারা প্রসব বেদনা সহ্য করেছিল। আজ স্বাধীনতার ইতিহাস তোমরা যতটুকু যান আমিও ততটুকু জানি। এটি বর্তমান রাষ্ট্র চালকদের সুবাধে হয়েছে।
তিনি বলেন, তোমরা ভগ্যবান এই জন্য তোমরা যান মুক্তিযুদ্ধে কার কতটুকু আবদান ছিল। তোমরা আজ জানতে পেরেছো কারণ তোমাদের পাঠ্যপুস্তকে এসেছে।


তিনি বলেন, যে মানুষটি বাংলাদেশের সাধিকারের জন্য, অধিকার আদায়ের জন্য নিজের জীবনের ১৩ বছর জেলখানার অন্ধকার প্রকষ্ঠে কাটিয়েছেন। যে মানুষটি কৈশরের বয়স থেকে মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য সংগ্রাম করেছিলেন। যে মানুষটি সেই সময়ের ৭ কোটি মানুষকে একটি জায়গায় দাড় করাতে চেয়েছিলেন ,সেই মানুষটি স্বাধীনতার স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান।
তিনি বলেন, আর এই মানুষটির স্বাধীনতার ডাক, সেই ৭ ই মার্চের ভাষণও আমরা শৈশবে শুনতে পারিনি। কারণ তখন এই ভাষণটি নিষিদ্ধ করা হয়েছিল।
তিনি বলেন, সেই সময় আমরা যারা কিছুটা হলেও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা লালন করতাম, তাদের প্রযন্ড কষ্ট হতো। যখন দেখতাম একাত্তরের নরঘাতক নিজামী, মোজাহিদ, সাঈদীরা বাংলাদেশের মন্ত্রীসভায় ঠাই পেয়েছে।
শান্ত বলেন, আমি যেমন একজন আওয়ামী লীগ কর্মীর সন্তান, নেতার সন্তান। তেমনি অনেই আছো যারা হয়তো বা বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের কর্মীর সন্তান বা সেই ধারায় বিশ্বাস করো। কিংবা বাংলাদেশ কমিউনিষ্ট পার্টি মতাদর্শের ধারার বিশ্বাসী কোন বাবা মা সন্তান। কিন্তু তোমারা তোমাদের চেতনাকে বেছে নিতে পারবে।
তিনি বলেন,তোমরা তোমাদের চেতনার জায়গা থেকে যে কোন দলকে সমর্থন করতে পারবে। কিন্তু আমি তোমাদের এই অঙ্গনে দাড়িয়ে তোমাদের প্রতি আহবান রাখবো। তোমাদের কাছে একটি মিনতি রাখবো বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিরোধীরা যেন তোমাদের কাছে ঠাই না পায়।

Print Friendly, PDF & Email

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» দুঃসময়ের ত্যাগী নেতৃত্বের হাতেই থাকবে আগামী আওয়ামী লীগ- ময়মনসিংহে বাহাউদ্দিন নাছিম

» শেখ রেহেনার জন্মদিনে ময়মনসিংহ সদর উপজেলা যুবলীগের উদ্যোগে মিলাদ ও দোয়া

» বাহাউদ্দিন নাসিম এর আগমন উপলক্ষে  ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

» কথা ক্লিয়ার-শিক্ষিত,ক্লিন ইমেজ যুবকদের জন্য অবারিত যুবলীগ- কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক খসরু

» ময়মনসিংহ জেলা ও মহানগর যুবলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে

» ময়মনসিংহ মহানগরী জু্ড়ে শোক আয়োজনে মোহিত উর রহমান শান্ত

» শোক দিবসে যুবলীগনেতা সব্যসাচীর উদ্যেগে অসহায়দের মাঝে বস্ত্র বিতরণ ও গণভোজ

» ১৫ আগস্ট পালন উপলক্ষে ময়মনসিংহ মহানগর সাধারণ সম্পাদকের মতবিনিময় সভা

» ময়মনসিংহে মহানগর যুবলীগের উদ্যোগে মাসব্যাপী রেশনিং সিস্টেমে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

» শর্ত সাপেক্ষে খুলে দেয়া হয়েছে জেলা স্কুল মোড়ের সেই ত্রুটিপূর্ণ ১৪ তলা ভবন

» সংসার ফিরে পেতে চায় ময়মনসিংহের ডাক্তার জান্নাতুল   

» নগর জুড়ে ময়মনসিংহ মহানগর সাধারণ সম্পাদকের ইফতার বিতরণ

» প্রধানমন্ত্রীর উপহার প্রাপ্যদের হাতে তুলে দিচ্ছেন ময়মনসিংহের ডিসি এনামুল হক

» ময়মনসিংহে অসহায় কৃষকের ধান কেটে ঘরে পৌছে দিলো ছাত্রলীগ নেতা টুটুল

» ময়মনসিংহ টিসিএ’র সভাপতি নুরুজ্জামান সম্পাদক দেলোয়ার 

আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com

,

basic-bank

স্বাধীনতা বিরোধীরা যেন তোমাদের কাছে ঠাই না পায়-মিন্টু কলেজে মোহিত উর রহমান শান্ত

বিল্লাল হোসেন প্রান্ত ॥
আমি আজকে তোমাদের কাছে একটি মিনতি করে যাই তোমরা যে যেখানেই দাড়িয়ে থাকো না কেন, সমাজের যেখানেই তোমাদের অবস্থান হোক বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিরোধীরা যেন তোমাদের কাছে ঠাই না পায়। কথাগুলো বলেছেন ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্ত।
শনিবার ১৬ ডিসেম্বর সকালে মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে আলমগীর মনসুর মিন্টু মেমোরিয়াল কলেজ ক্যাম্পাসে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তবে রাখেন তিনি ।
কলেজ অধ্যক্ষ নীহার রঞ্জন রায় এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগ আহবায়ক এড. আজহারুল ইসলাম, ময়মনসিংহ মহিলা ডিগ্রী কলেজ অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার। মঞ্চে আরও উপস্থিত ছিলেন প্রস্তাবিত মহানগর আওয়ামী লীগ আইন বিষয়ক সম্পাদক এড. তাজুল ইসলাম খোকন, জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক সরকার মো: সব্যসাচী। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ডা: ফাতেমা তুজ জোহুরা পিয়া প্রমুখ।


ইংরেজ শাসন আমল থেকে দীর্ঘ পথ পরিক্রমায় সবশেষ ২৫ শে মার্চ থেকে ১৬ ডিসেম্বর পূর্ণ বিজয় এর সংক্ষিপ্ত পটভূমি তুলে ধরে মোহিত উর রহমান শান্ত বলেন, তোমরা একটি ভাগ্যবান প্রজন্ম। কারণ এ প্রজন্মকে যারা লালন করো তারা বাংলাদেশের সঠিক ইতিহাসটা জানতে পেরেছ।
তিনি বলেন, আমরা যখন ছোট ছিলাম সঠিক ইতিহাসটা জানতে পারিনি। বাংলাদেশের কোথাও কোন পাঠ্যপুস্তকে আমাদের মুক্তিযোদ্ধের সঠিক ইতিহাসটা প্রকাশ করা হয়নি সে সময়।
মোহিত উর রহমান শান্ত বলেন, তোমরা যারা এই প্রজন্ম তোমারা ভাগ্যবান। তোমাদের সময় বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় মুক্তিযুদ্ধের চেতনার শক্তি আসিন রয়েছে। আমাদের শৈশব কৈশরে মুক্তিযুদ্ধের বিরোধীরা এই রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় ছিল। তারা আমাদের জানতে দেয়নি রাষ্ট্রের জন্মের পেছনে কার কতটা অবদান।
শান্ত বলেন, তারা আমাদেরকে জানতে দেয়নি রাষ্ট্রকে জন্ম দিতে গিয়ে কারা কারা প্রসব বেদনা সহ্য করেছিল। আজ স্বাধীনতার ইতিহাস তোমরা যতটুকু যান আমিও ততটুকু জানি। এটি বর্তমান রাষ্ট্র চালকদের সুবাধে হয়েছে।
তিনি বলেন, তোমরা ভগ্যবান এই জন্য তোমরা যান মুক্তিযুদ্ধে কার কতটুকু আবদান ছিল। তোমরা আজ জানতে পেরেছো কারণ তোমাদের পাঠ্যপুস্তকে এসেছে।


তিনি বলেন, যে মানুষটি বাংলাদেশের সাধিকারের জন্য, অধিকার আদায়ের জন্য নিজের জীবনের ১৩ বছর জেলখানার অন্ধকার প্রকষ্ঠে কাটিয়েছেন। যে মানুষটি কৈশরের বয়স থেকে মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য সংগ্রাম করেছিলেন। যে মানুষটি সেই সময়ের ৭ কোটি মানুষকে একটি জায়গায় দাড় করাতে চেয়েছিলেন ,সেই মানুষটি স্বাধীনতার স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান।
তিনি বলেন, আর এই মানুষটির স্বাধীনতার ডাক, সেই ৭ ই মার্চের ভাষণও আমরা শৈশবে শুনতে পারিনি। কারণ তখন এই ভাষণটি নিষিদ্ধ করা হয়েছিল।
তিনি বলেন, সেই সময় আমরা যারা কিছুটা হলেও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা লালন করতাম, তাদের প্রযন্ড কষ্ট হতো। যখন দেখতাম একাত্তরের নরঘাতক নিজামী, মোজাহিদ, সাঈদীরা বাংলাদেশের মন্ত্রীসভায় ঠাই পেয়েছে।
শান্ত বলেন, আমি যেমন একজন আওয়ামী লীগ কর্মীর সন্তান, নেতার সন্তান। তেমনি অনেই আছো যারা হয়তো বা বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের কর্মীর সন্তান বা সেই ধারায় বিশ্বাস করো। কিংবা বাংলাদেশ কমিউনিষ্ট পার্টি মতাদর্শের ধারার বিশ্বাসী কোন বাবা মা সন্তান। কিন্তু তোমারা তোমাদের চেতনাকে বেছে নিতে পারবে।
তিনি বলেন,তোমরা তোমাদের চেতনার জায়গা থেকে যে কোন দলকে সমর্থন করতে পারবে। কিন্তু আমি তোমাদের এই অঙ্গনে দাড়িয়ে তোমাদের প্রতি আহবান রাখবো। তোমাদের কাছে একটি মিনতি রাখবো বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিরোধীরা যেন তোমাদের কাছে ঠাই না পায়।

Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com