সকাল ৭:১৯ | শনিবার | ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

হাইব্রিড নিধনে শেখ হাসিনা তৎপর আগামীতে এদের অস্তিত্ব থাকবেনা দাপুনিয়া কর্মীসভায় শান্ত

বিল্লাল হোসেন প্রান্তঃ

নিবেদিত নেতাকর্মীদের শ্রমে ঘামে প্রতিষ্ঠিত আওয়ামী লীগে হাইব্রিডদের যে উপস্থিত ঘটেছে তা নিবিড় পর্যবেক্ষন করেছেন দলের সভাপতি জননেত্রী শেখ হাসিনা। ইতিমধ্যেই তিনি এসব হাইব্রিডদের চিহ্নিত করে পদক্ষেপ নিচ্ছেন। আগামী দিনের আওয়ামী লীগে এ প্রজাতি আর তাদের বিশবাষ্প ছড়াতে পারবেনা। ১০ নং দাপুনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বিশাল কর্মীসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে কথাগুলো বলেন ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্ত

২০ ফেব্রুয়ারি শনিবার বিকালে দাপুনিয়ায় ইউনিয়ন জয়বাংলা ইয়ূথ ক্লাব আয়োজিত নাইট ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ফাইনাল খেলার উদ্বোধন করেন মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্ত। এসময় ১০ নং দাপুনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের হাজার হাজার নেতাকর্মীরা তাকে ফুলেল শুভেচ্ছায় বরণ করে নেন।

১০ নং দাপুনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী সভাপতি মোঃ রফিক উদ্দিন রুবেলের সভাপতিত্বে ডি কে ইসলামীয়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বিশাল এ কর্মী ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বিভিন্ন ওয়ার্ডের হাজার হাজার নেতাকর্মীর উপস্থিতি ঘটে। বিশাল মাঠ কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে উঠে জয় বাংলা শ্লোগানে মুখরিত হয় দাপুনিয়া ইউনিয়নের আকাশ বাতাস।

জনাকীর্ণ কর্মীসভায় মোহিত উর রহমান শান্ত বলেন, ময়মনসিংহকে আওয়ামী লীগের ঘাটি বলা হয়। আর এ ঘাটি পরিনত করতে এ জনপদের নিবেদিত নেতাকর্মীরা তাদের সারা জীবনের শ্রম, ঘাম বিসর্জন দিয়েছেন যুগ যুগ ধরে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের আদর্শকে ধারন করে এ মাটির প্রতিটি বালুকনায় তারা হেটে বেড়িয়েছেন জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে।

মোহিত উর রহমান শান্ত বলেন, আমার পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ অধ্যক্ষ মতিউর রহমান দীর্ঘ রাজনেতিক জীবনে নানা চড়াই উৎরাই পার করে এখানে আওয়ামী লীগকে গড়ে তুলেছেন। ময়মনসিংহ সদরকে আওয়ামী লীগের ঘাটি বলা হলেও এখানে ভোটের হিসাবে বিএনপি অবস্থান রয়েছে। এক্ষেত্রে অধ্যক্ষ মতিউর রহমান প্রতিটি এলাকায় নিবেদিত নেতা তৈরি করেছেন কঠিন যুদ্ধের মাধ্যমে। আজ সে নিবেদিত নেতাকর্মীর আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে কুন্ঠাসা হয়ে পড়ছেন অনুপ্রবেশকারী হাইব্রিডদের ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে।

 

 

তিনি বলেন, দলের দুর্দিনে অবদান রাখা নেতাকর্মীরা আজ বিভিন্নভাবে হয়রানির শিকার হাইব্রিডদের জাতাঁকলে। আর এসব হাইব্রিডদের দলে ডুকিয়েছেন বর্তমান নেতৃত্বের গুটি কয়েক অপরাজনীতিকরা। তাদের চিহ্নিত করে দলকে পুনরায় নিবেদিতদের হাতে তুলে দিতে কাজ করছেন জননেত্রী শেখ হাসিনা।

 

 

শান্ত বলেন, ময়মনসিংহ আওয়ামী লীগে এমন কিছু হাইব্রিড প্রবেশ করেছে যাদের গা থেকে এখনও বিএনপির গন্ধ যায়নি। যাদের অফিস থেকে পরিকল্পিতভাবে একসময় আওয়ামী লীগের অফিসে হামলাও হয়েছে।তারা দলে ডুকেই দলের ভেতরে বাইরে ষড়যন্ত্র করছে। তাদের কর্মকান্ড বিশ্লেষণ করলে দেখা যাবে এ যাবৎ অসংখ্য নেতাকর্মীরা আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকার পরও এদের ষড়যন্ত্রে জেল জুলুমের শিকার হয়েছে। এসব হাইব্রিডরা আজও ময়মনসিংহ বিএনপির একটি অংশকে নিয়ন্ত্রণ করছে। নানা সুযোগ সুবিধা পাইয়ে দিয়ে।

 

 

তিনি বলেন, আজকে আমি যেখানে দাড়িয়ে কথা বলছি এই দাপুনিয়া ইউনিয়নে একসময় আওয়ামী লীগের বেশ কয়েকজন নেতা তাদের শ্রম ঘাম দিয়ে এখানে আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করেছে। তাদের কুন্ঠাসা করতে এখানে অনেক বেইমান হাইব্রিডদের সাথে হাত মিলিয়েছে। তবে মনে রাখবেন ময়মনসিংহ সদরের প্রতিটি ইউনিয়নে নৌকার মনোনয়নের ক্ষেত্রে জননেত্রী শেখ হাসিনা অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের সিদ্ধান্তকে প্রাধান্য দিয়েছেন। ভবিষ্যতেও এর ব্যাতিক্রম হবে না। এখানে নিবেদিতরাই রাজনীতি করবে। আগামীর মনোনয়ন পাবে। হাইব্রিডদের ছক আর এখানে চলবেনা।

 

 

কর্মীসভায় আরও বক্তব্য রাখেন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি মোঃ রফিক উদ্দিন রুবেল, জেলা যুবলীগ যুগ্ম আহবায়ক আখেরুল ইমাম সোহাগ,কোতোয়ালী স্বেচ্ছাসেবকলীগ সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলহাজ আনিছুর রহমান কাজল, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা আবুল হোসেন, এড. সেকান্দর আলী, জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক সরকার মোঃ সব্যসাচী, মহানগর যুবলীগ সদস্য রাফিউর রিফাত প্রমুখ। এতে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মমতাজ উদ্দিন মন্তা, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুস সালাম সরকার, মহানগর যুবলীগ যুগ্ম আহবায়ক রাসেল পাঠান, ঘাগড়া ইউনিয়ন আওয়ামী নেতা ফয়জুর রহমান মারুফ, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ পান্না, জেলা যুবলীগ সদস্য পিন্টু সরকার, আসাদুজ্জামান রুমেল, মহানগর ছাত্রলীগ সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফয়জুর রাজ্জাক উষান, যুবনেতা ইঞ্জিনিয়ার রাফিউর রাজ্জাক বাদশা, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি এনায়েত কবির জুয়েল, মহানগর ছাত্রলীগ নেতা সাগর চৌধুরী প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» দুঃসময়ের ত্যাগী নেতৃত্বের হাতেই থাকবে আগামী আওয়ামী লীগ- ময়মনসিংহে বাহাউদ্দিন নাছিম

» শেখ রেহেনার জন্মদিনে ময়মনসিংহ সদর উপজেলা যুবলীগের উদ্যোগে মিলাদ ও দোয়া

» বাহাউদ্দিন নাসিম এর আগমন উপলক্ষে  ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

» কথা ক্লিয়ার-শিক্ষিত,ক্লিন ইমেজ যুবকদের জন্য অবারিত যুবলীগ- কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক খসরু

» ময়মনসিংহ জেলা ও মহানগর যুবলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে

» ময়মনসিংহ মহানগরী জু্ড়ে শোক আয়োজনে মোহিত উর রহমান শান্ত

» শোক দিবসে যুবলীগনেতা সব্যসাচীর উদ্যেগে অসহায়দের মাঝে বস্ত্র বিতরণ ও গণভোজ

» ১৫ আগস্ট পালন উপলক্ষে ময়মনসিংহ মহানগর সাধারণ সম্পাদকের মতবিনিময় সভা

» ময়মনসিংহে মহানগর যুবলীগের উদ্যোগে মাসব্যাপী রেশনিং সিস্টেমে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

» শর্ত সাপেক্ষে খুলে দেয়া হয়েছে জেলা স্কুল মোড়ের সেই ত্রুটিপূর্ণ ১৪ তলা ভবন

» সংসার ফিরে পেতে চায় ময়মনসিংহের ডাক্তার জান্নাতুল   

» নগর জুড়ে ময়মনসিংহ মহানগর সাধারণ সম্পাদকের ইফতার বিতরণ

» প্রধানমন্ত্রীর উপহার প্রাপ্যদের হাতে তুলে দিচ্ছেন ময়মনসিংহের ডিসি এনামুল হক

» ময়মনসিংহে অসহায় কৃষকের ধান কেটে ঘরে পৌছে দিলো ছাত্রলীগ নেতা টুটুল

» ময়মনসিংহ টিসিএ’র সভাপতি নুরুজ্জামান সম্পাদক দেলোয়ার 

আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com

,

basic-bank

হাইব্রিড নিধনে শেখ হাসিনা তৎপর আগামীতে এদের অস্তিত্ব থাকবেনা দাপুনিয়া কর্মীসভায় শান্ত

বিল্লাল হোসেন প্রান্তঃ

নিবেদিত নেতাকর্মীদের শ্রমে ঘামে প্রতিষ্ঠিত আওয়ামী লীগে হাইব্রিডদের যে উপস্থিত ঘটেছে তা নিবিড় পর্যবেক্ষন করেছেন দলের সভাপতি জননেত্রী শেখ হাসিনা। ইতিমধ্যেই তিনি এসব হাইব্রিডদের চিহ্নিত করে পদক্ষেপ নিচ্ছেন। আগামী দিনের আওয়ামী লীগে এ প্রজাতি আর তাদের বিশবাষ্প ছড়াতে পারবেনা। ১০ নং দাপুনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বিশাল কর্মীসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে কথাগুলো বলেন ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্ত

২০ ফেব্রুয়ারি শনিবার বিকালে দাপুনিয়ায় ইউনিয়ন জয়বাংলা ইয়ূথ ক্লাব আয়োজিত নাইট ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ফাইনাল খেলার উদ্বোধন করেন মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্ত। এসময় ১০ নং দাপুনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের হাজার হাজার নেতাকর্মীরা তাকে ফুলেল শুভেচ্ছায় বরণ করে নেন।

১০ নং দাপুনিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী সভাপতি মোঃ রফিক উদ্দিন রুবেলের সভাপতিত্বে ডি কে ইসলামীয়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বিশাল এ কর্মী ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বিভিন্ন ওয়ার্ডের হাজার হাজার নেতাকর্মীর উপস্থিতি ঘটে। বিশাল মাঠ কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে উঠে জয় বাংলা শ্লোগানে মুখরিত হয় দাপুনিয়া ইউনিয়নের আকাশ বাতাস।

জনাকীর্ণ কর্মীসভায় মোহিত উর রহমান শান্ত বলেন, ময়মনসিংহকে আওয়ামী লীগের ঘাটি বলা হয়। আর এ ঘাটি পরিনত করতে এ জনপদের নিবেদিত নেতাকর্মীরা তাদের সারা জীবনের শ্রম, ঘাম বিসর্জন দিয়েছেন যুগ যুগ ধরে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের আদর্শকে ধারন করে এ মাটির প্রতিটি বালুকনায় তারা হেটে বেড়িয়েছেন জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে।

মোহিত উর রহমান শান্ত বলেন, আমার পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ অধ্যক্ষ মতিউর রহমান দীর্ঘ রাজনেতিক জীবনে নানা চড়াই উৎরাই পার করে এখানে আওয়ামী লীগকে গড়ে তুলেছেন। ময়মনসিংহ সদরকে আওয়ামী লীগের ঘাটি বলা হলেও এখানে ভোটের হিসাবে বিএনপি অবস্থান রয়েছে। এক্ষেত্রে অধ্যক্ষ মতিউর রহমান প্রতিটি এলাকায় নিবেদিত নেতা তৈরি করেছেন কঠিন যুদ্ধের মাধ্যমে। আজ সে নিবেদিত নেতাকর্মীর আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে কুন্ঠাসা হয়ে পড়ছেন অনুপ্রবেশকারী হাইব্রিডদের ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে।

 

 

তিনি বলেন, দলের দুর্দিনে অবদান রাখা নেতাকর্মীরা আজ বিভিন্নভাবে হয়রানির শিকার হাইব্রিডদের জাতাঁকলে। আর এসব হাইব্রিডদের দলে ডুকিয়েছেন বর্তমান নেতৃত্বের গুটি কয়েক অপরাজনীতিকরা। তাদের চিহ্নিত করে দলকে পুনরায় নিবেদিতদের হাতে তুলে দিতে কাজ করছেন জননেত্রী শেখ হাসিনা।

 

 

শান্ত বলেন, ময়মনসিংহ আওয়ামী লীগে এমন কিছু হাইব্রিড প্রবেশ করেছে যাদের গা থেকে এখনও বিএনপির গন্ধ যায়নি। যাদের অফিস থেকে পরিকল্পিতভাবে একসময় আওয়ামী লীগের অফিসে হামলাও হয়েছে।তারা দলে ডুকেই দলের ভেতরে বাইরে ষড়যন্ত্র করছে। তাদের কর্মকান্ড বিশ্লেষণ করলে দেখা যাবে এ যাবৎ অসংখ্য নেতাকর্মীরা আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকার পরও এদের ষড়যন্ত্রে জেল জুলুমের শিকার হয়েছে। এসব হাইব্রিডরা আজও ময়মনসিংহ বিএনপির একটি অংশকে নিয়ন্ত্রণ করছে। নানা সুযোগ সুবিধা পাইয়ে দিয়ে।

 

 

তিনি বলেন, আজকে আমি যেখানে দাড়িয়ে কথা বলছি এই দাপুনিয়া ইউনিয়নে একসময় আওয়ামী লীগের বেশ কয়েকজন নেতা তাদের শ্রম ঘাম দিয়ে এখানে আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করেছে। তাদের কুন্ঠাসা করতে এখানে অনেক বেইমান হাইব্রিডদের সাথে হাত মিলিয়েছে। তবে মনে রাখবেন ময়মনসিংহ সদরের প্রতিটি ইউনিয়নে নৌকার মনোনয়নের ক্ষেত্রে জননেত্রী শেখ হাসিনা অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের সিদ্ধান্তকে প্রাধান্য দিয়েছেন। ভবিষ্যতেও এর ব্যাতিক্রম হবে না। এখানে নিবেদিতরাই রাজনীতি করবে। আগামীর মনোনয়ন পাবে। হাইব্রিডদের ছক আর এখানে চলবেনা।

 

 

কর্মীসভায় আরও বক্তব্য রাখেন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি মোঃ রফিক উদ্দিন রুবেল, জেলা যুবলীগ যুগ্ম আহবায়ক আখেরুল ইমাম সোহাগ,কোতোয়ালী স্বেচ্ছাসেবকলীগ সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলহাজ আনিছুর রহমান কাজল, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা আবুল হোসেন, এড. সেকান্দর আলী, জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক সরকার মোঃ সব্যসাচী, মহানগর যুবলীগ সদস্য রাফিউর রিফাত প্রমুখ। এতে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মমতাজ উদ্দিন মন্তা, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুস সালাম সরকার, মহানগর যুবলীগ যুগ্ম আহবায়ক রাসেল পাঠান, ঘাগড়া ইউনিয়ন আওয়ামী নেতা ফয়জুর রহমান মারুফ, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ পান্না, জেলা যুবলীগ সদস্য পিন্টু সরকার, আসাদুজ্জামান রুমেল, মহানগর ছাত্রলীগ সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফয়জুর রাজ্জাক উষান, যুবনেতা ইঞ্জিনিয়ার রাফিউর রাজ্জাক বাদশা, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি এনায়েত কবির জুয়েল, মহানগর ছাত্রলীগ নেতা সাগর চৌধুরী প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com