বিকাল ৫:২৫ | মঙ্গলবার | ১লা ডিসেম্বর, ২০২০ ইং | ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শান্তির জাতীয় সংগীতে একসঙ্গে ভারত-পাকিস্তান

পাকিস্তানের ৭০ তম স্বাধীনতা দিবস আজ। আগামীকাল ভারত পালন করবে নিজের ৭০ তম স্বাধীনতা দিবস। প্রতিবেশী দুই দেশের বৈরিতা নতুন নয়। কাশ্মির নিয়ে সাম্প্রতিক সময়ে দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনার পারদ আরো ওপরে উঠেছে।

এমন প্রেক্ষাপটে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে ভারত এবং পাকিস্তানের একদল তরুণ শিল্পীর গাওয়া একটি গান, যাকে উদ্যোক্তারা বলছেন ‘পিস অ্যানথেম’ বা শান্তির জাতীয় সঙ্গীত।

‘ভয়েস অব রাম’ নামে শান্তির পক্ষে প্রচারণা চালানো ফেসবুক ভিত্তিক একটি গ্রুপ গানটি পোষ্ট করেছে। ১২ ঘণ্টার মধ্যেই প্রায় সাড়ে তিন লাখ বার দেখা হয়েছে ভিডিওটি। দশ হাজারের মত শেয়ার করা হয়েছে গানটি।

ভিডিওর শুরুতেই পর্দায় ভেসে ওঠে একটি বাক্য “শিল্পের জন্য আমরা যখন সীমান্ত খুলে দেই, তখন শান্তির দেখা মেলে”।

দেখা যায়, একটি গানেরই প্রথম অংশে পাকিস্তানের জাতীয় সঙ্গীত ‘পাক সার জমিন সাদ বাদ’ গাইছেন একদল শিল্পী। পরের অংশে সেই শিল্পীদেরই দেখা যায় ভারতের জাতীয় সঙ্গীত ‘জনগনমন অধিনায়ক জয় হে’ গাইছেন।

এদের কাউকে কাউকে রেকর্ডিং স্টুডিও থেকে, আবার কাউকে কাউকে দুই দেশের বিভিন্ন লোকেশনে গানে গলা মেলাতে দেখা যায়। গানটি শেষে পর্দায় ভেসে ওঠে “আসুন শান্তি পক্ষে দাঁড়াই”।

‘ভয়েস অব রাম’ এর প্রধান চলচ্চিত্রকার এবং রাজনৈতিক আন্দোলন কর্মী রাম সুব্রামানিয়ন বলেছেন, অনেক মানুষই আছেন যারা শান্তির পক্ষে কথা বলতে ভয় পায়। তাদের অযৌক্তিক ভীতি দূর করার জন্য এই ভিডিও।

গানটি নিয়ে এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে তুমুল আলোচনা সমালোচনা। পাকিস্তানের ডন পত্রিকা একে ‘অবাক করা’ উপহার হিসেবে আখ্যা দিয়ে বলছে গানটি শুনতে বেশ ভালো।

গত বছর কাশ্মির নিয়ে সীমান্তে নতুন করে উত্তেজনা শুরু হবার পর থেকে দুই তরফের হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। দুই দেশের মধ্যে শান্তির কোন উদ্যোগ বা বিনিময়কে উভয় দেশের জাতীয়তাবাদীরা বিশ্বাসঘাতক বলে আখ্যায়িত করার একটি সাধারণ প্রবণতা দুই দেশেই আছে।

Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ

» সিটি মেয়রের সিদ্ধান্তে হতাশ ময়মনসিংহবাসী চুরখাই মানববন্ধনে

» ডাঃ শুভ বালিকা উচ্চবিদ্যালয় পুনরায় চালুর দাবিতে ২৭ নং ওয়ার্ডের মানববন্ধন

» শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভেঙ্গে জনপ্রিয়তা অর্জন করা যায়না; মানববন্ধন থেকে বক্তারা

» মুশফিকুর রহমান শুভ বালিকা উচ্চবিদ্যালয় পুনরায় চালুর দাবিতে ১০ নং ওয়ার্ডের মানববন্ধন

» ময়মনসিংহে ডাঃ শুভ স্কুল পুনরায় চালুর দাবিতে ১৬ নং ওয়ার্ডের মানববন্ধন

» ময়মনসিংহে ডাঃ শুভ স্কুল পুনরায় চালুর দাবিতে ৩১,৩২,৩৩ নং ওয়ার্ডের মানববন্ধন

» সর্বস্থরের মানুষের বদ্ধমূল ধারনা নামের জন্যই কি স্কুলটি গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে?

» ময়মনসিংহ কুষ্টিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ

» ৪৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ময়মনসিংহ জেলা যুবলীগের উদ্যেগে পথমানুষের মাঝে মাস্ক বিতরণ

» যুবলীগের ৪৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ময়মনসিংহে পক্ষাঘাতগ্রস্তদের মাঝে হুইলচেয়ার বিতরণ

» ময়মনসিংহে উচ্ছেদকৃত স্কুল সচলে ৪৮ ঘন্টার আল্টিমেটাম, মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা

» নারী শিক্ষার্থীদের অনিশ্চিত ভবিষ্যত রক্ষার্থে মেয়রের প্রতি শিক্ষকদের আহবান

» ময়মনসিংহে ২৬০ শিক্ষার্থীর ভাগ্য অনিশ্চিত; স্কুল ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়েছে সিটি করপোরেশন

» জেলায় সোহাগ-রানা,মহানগরে রাজীব-সামী

আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com

,

basic-bank

শান্তির জাতীয় সংগীতে একসঙ্গে ভারত-পাকিস্তান

পাকিস্তানের ৭০ তম স্বাধীনতা দিবস আজ। আগামীকাল ভারত পালন করবে নিজের ৭০ তম স্বাধীনতা দিবস। প্রতিবেশী দুই দেশের বৈরিতা নতুন নয়। কাশ্মির নিয়ে সাম্প্রতিক সময়ে দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনার পারদ আরো ওপরে উঠেছে।

এমন প্রেক্ষাপটে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে ভারত এবং পাকিস্তানের একদল তরুণ শিল্পীর গাওয়া একটি গান, যাকে উদ্যোক্তারা বলছেন ‘পিস অ্যানথেম’ বা শান্তির জাতীয় সঙ্গীত।

‘ভয়েস অব রাম’ নামে শান্তির পক্ষে প্রচারণা চালানো ফেসবুক ভিত্তিক একটি গ্রুপ গানটি পোষ্ট করেছে। ১২ ঘণ্টার মধ্যেই প্রায় সাড়ে তিন লাখ বার দেখা হয়েছে ভিডিওটি। দশ হাজারের মত শেয়ার করা হয়েছে গানটি।

ভিডিওর শুরুতেই পর্দায় ভেসে ওঠে একটি বাক্য “শিল্পের জন্য আমরা যখন সীমান্ত খুলে দেই, তখন শান্তির দেখা মেলে”।

দেখা যায়, একটি গানেরই প্রথম অংশে পাকিস্তানের জাতীয় সঙ্গীত ‘পাক সার জমিন সাদ বাদ’ গাইছেন একদল শিল্পী। পরের অংশে সেই শিল্পীদেরই দেখা যায় ভারতের জাতীয় সঙ্গীত ‘জনগনমন অধিনায়ক জয় হে’ গাইছেন।

এদের কাউকে কাউকে রেকর্ডিং স্টুডিও থেকে, আবার কাউকে কাউকে দুই দেশের বিভিন্ন লোকেশনে গানে গলা মেলাতে দেখা যায়। গানটি শেষে পর্দায় ভেসে ওঠে “আসুন শান্তি পক্ষে দাঁড়াই”।

‘ভয়েস অব রাম’ এর প্রধান চলচ্চিত্রকার এবং রাজনৈতিক আন্দোলন কর্মী রাম সুব্রামানিয়ন বলেছেন, অনেক মানুষই আছেন যারা শান্তির পক্ষে কথা বলতে ভয় পায়। তাদের অযৌক্তিক ভীতি দূর করার জন্য এই ভিডিও।

গানটি নিয়ে এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে তুমুল আলোচনা সমালোচনা। পাকিস্তানের ডন পত্রিকা একে ‘অবাক করা’ উপহার হিসেবে আখ্যা দিয়ে বলছে গানটি শুনতে বেশ ভালো।

গত বছর কাশ্মির নিয়ে সীমান্তে নতুন করে উত্তেজনা শুরু হবার পর থেকে দুই তরফের হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। দুই দেশের মধ্যে শান্তির কোন উদ্যোগ বা বিনিময়কে উভয় দেশের জাতীয়তাবাদীরা বিশ্বাসঘাতক বলে আখ্যায়িত করার একটি সাধারণ প্রবণতা দুই দেশেই আছে।

Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com