সকাল ৬:৪৮ | শুক্রবার | ১০ই এপ্রিল, ২০২০ ইং | ২৭শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ময়মনসিংহে বাধঁ সংস্কার কাজ শুরু, ক্ষতিগ্রস্থদের জন্য সহায়তা প্রয়োজন

বিল্লাল হোসেন প্রান্তঃ

ময়মনসিংহের চরাঞ্চল জেলখানর চরে ব্রহ্মপুত্র নদের পানি বৃদ্ধি পেয়ে তীব্র স্রোতে ভেঙ্গে যাওয়া বাঁধ পূনঃসংস্কার কাজ শুরু হয়ে গেছে। তবে ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামবাসীর জন্য একনও ত্রান সহায়তা আসেনি।

 

 

বৃহস্পতিবার (২৫ জুলাই) সকাল থেকে ময়মনসিংহ পানি উন্নয়ন বোর্ড বাঁধ পুনঃসংস্কার সামগ্রি নিয়ে কাজ শুরু করেছে।

 

ময়মনসিংহ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ জহুরুল ইসলাম জানান, জরুরী টেন্ডারে বাঁধ সংস্কারে কাজ চলছে। ৪ হাজার ২৫০ কেজি জিও ব্যাগ প্রাথমিকভাবে বাঁধে ফেলা হচ্ছে। এক্ষেত্রে সিটি করপোরেশনের প্রতিনিধি, সদর উপজেলা অফিসের প্রতিনিধিরা রয়েছেন কার্যক্রমের সাথে।

ময়মনসিংহ পানি উন্নয়ন বোর্ডের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী কে এম শফিকুল হক বলেন, এই বাঁধটি ২৩ কিলোমিটার। এর ৩০ মিটার বন্যার পানির তোরে ভেঙ্গে যায়। জরুরী ভিত্তিতে আমরা বাধটি সংস্কারে কাজ করছি।

 

 

বাধঁ ভেঙে প্রবল বেগে পানি প্রবেশ করায় তলিয়ে গেছে সদর উপজেলার চর জেলাখানা, চর গোবিন্দপুর, দূর্গাপুর, বারেরচর, চরসিরতা এলাকার কয়েক’শ ঘরবাড়ি, ফসলি জমি, আমন ধানের বীজতলা ও কয়েকটি মাছের খামার। ঝুঁকিতে রয়েছে আরও বেশ কয়েকটি গ্রাম।

বাধঁ ভেঙ্গে বন্যার পানি ঢুকে পড়ায় আতঙ্কে রয়েছে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার কয়েক হাজার মানুষ। ঘরবাড়ি ছেড়ে খোলা আকাশের নিচে বাধেঁর উপর আশ্রয় নিয়েছে অসংখ্য পরিবার।

 

 

ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাবাসীর জানান, সরকার বাঁধটি দ্রুত সংস্কারে পদক্ষেপ নিয়েছে এ জন্য আমরা খুশি। তবে এখানে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের জন্য ত্রানসহ সহায়তা সামগ্রী প্রয়োজন।

বাঁধ ভেঙ্গে ক্ষতিগ্রস্ত জেলখানা চরের আসাদ মিয়া জানান, আমাদের বাড়িঘর পানিতে তলিয়ে গেছে। পরিবার নিয়ে বাঁধে আশ্রয় নিয়েছি। এখন কাজ কর্মেও যেতে পারছিনা। খাবারে কষ্টে আছি।

তিনি জানান, কারা যেন নাম ঠিকানা লিখে নিয়ে গেছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন সহায়তা পায়নি।

 

এলাকাবাসী জানান, বাধঁ সংস্কার হয়ে গেলে পানি হয়তো আর ঢুকবে না। তবে ঢুকে যাওয়া পানি বেড়িয়ে যাওয়া ব্যবস্থা না করলে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষগুলো দীর্ঘ সময় পর্যন্ত পানি বন্দি থাকবে।

Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» ছবির মানুষগুলো আছেন আপনার পাশে; চাইছেন শুধু ঘরে থাকার সহযোগীতা

» যুবলীগ নেতা রাসেল পাঠানের উদ্যোগে দ্বিতীয় দিনে চলছে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

» সুষ্ঠু পরিকল্পনায় যুবলীগ নেতা রাসেল পাঠানের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

» থেমে গেল একটি কলম; ময়মনসিংহের কিংবদন্তি সাংবাদিক আশিক চৌধুরীর মহাপ্রস্থান

» ময়মনসিংহ রেঞ্জ ডিআইজির খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

» ঘরে থাকুন, খাবার পৌঁছে যাবে আপনার ঘরে-ময়মনসিংহের ডিসি

» ময়মনসিংহের আঠারো বাড়িতে ছাত্রলীগের উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ

» শম্ভুগঞ্জ বেদে বস্তিতে জেলা পুলিশের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

» ময়মনসিংহ মহানগর ছাত্রলীগ নেতা রাহাতের উদ্যোগে দিনব্যাপী খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

» ময়মনসিংহে ৪ জঙ্গি গ্রেফতার, জিহাদী বইসহ সরঞ্জাম উদ্ধার

» ময়মনসিংহ মহিলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে জীবানুনাশক সামগ্রী বিতরণ

» নিজ এলাকার একশত অসহায় পরিবারকে খাদ্যসহায়তার ঘোষনা দিলেন আসাদুজ্জামান রুমেল

» এবার মাইক হাতে নিজেই মাঠে নেমেছেন ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার

» ময়মনসিংহ পুলিশের পক্ষ থেকে খাদ্যসামগ্রী ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ

» ময়মনসিংহে সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করতে মাঠে নেমেছে সেনাবাহিনী

আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com

,

basic-bank

ময়মনসিংহে বাধঁ সংস্কার কাজ শুরু, ক্ষতিগ্রস্থদের জন্য সহায়তা প্রয়োজন

বিল্লাল হোসেন প্রান্তঃ

ময়মনসিংহের চরাঞ্চল জেলখানর চরে ব্রহ্মপুত্র নদের পানি বৃদ্ধি পেয়ে তীব্র স্রোতে ভেঙ্গে যাওয়া বাঁধ পূনঃসংস্কার কাজ শুরু হয়ে গেছে। তবে ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামবাসীর জন্য একনও ত্রান সহায়তা আসেনি।

 

 

বৃহস্পতিবার (২৫ জুলাই) সকাল থেকে ময়মনসিংহ পানি উন্নয়ন বোর্ড বাঁধ পুনঃসংস্কার সামগ্রি নিয়ে কাজ শুরু করেছে।

 

ময়মনসিংহ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ জহুরুল ইসলাম জানান, জরুরী টেন্ডারে বাঁধ সংস্কারে কাজ চলছে। ৪ হাজার ২৫০ কেজি জিও ব্যাগ প্রাথমিকভাবে বাঁধে ফেলা হচ্ছে। এক্ষেত্রে সিটি করপোরেশনের প্রতিনিধি, সদর উপজেলা অফিসের প্রতিনিধিরা রয়েছেন কার্যক্রমের সাথে।

ময়মনসিংহ পানি উন্নয়ন বোর্ডের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী কে এম শফিকুল হক বলেন, এই বাঁধটি ২৩ কিলোমিটার। এর ৩০ মিটার বন্যার পানির তোরে ভেঙ্গে যায়। জরুরী ভিত্তিতে আমরা বাধটি সংস্কারে কাজ করছি।

 

 

বাধঁ ভেঙে প্রবল বেগে পানি প্রবেশ করায় তলিয়ে গেছে সদর উপজেলার চর জেলাখানা, চর গোবিন্দপুর, দূর্গাপুর, বারেরচর, চরসিরতা এলাকার কয়েক’শ ঘরবাড়ি, ফসলি জমি, আমন ধানের বীজতলা ও কয়েকটি মাছের খামার। ঝুঁকিতে রয়েছে আরও বেশ কয়েকটি গ্রাম।

বাধঁ ভেঙ্গে বন্যার পানি ঢুকে পড়ায় আতঙ্কে রয়েছে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার কয়েক হাজার মানুষ। ঘরবাড়ি ছেড়ে খোলা আকাশের নিচে বাধেঁর উপর আশ্রয় নিয়েছে অসংখ্য পরিবার।

 

 

ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাবাসীর জানান, সরকার বাঁধটি দ্রুত সংস্কারে পদক্ষেপ নিয়েছে এ জন্য আমরা খুশি। তবে এখানে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের জন্য ত্রানসহ সহায়তা সামগ্রী প্রয়োজন।

বাঁধ ভেঙ্গে ক্ষতিগ্রস্ত জেলখানা চরের আসাদ মিয়া জানান, আমাদের বাড়িঘর পানিতে তলিয়ে গেছে। পরিবার নিয়ে বাঁধে আশ্রয় নিয়েছি। এখন কাজ কর্মেও যেতে পারছিনা। খাবারে কষ্টে আছি।

তিনি জানান, কারা যেন নাম ঠিকানা লিখে নিয়ে গেছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন সহায়তা পায়নি।

 

এলাকাবাসী জানান, বাধঁ সংস্কার হয়ে গেলে পানি হয়তো আর ঢুকবে না। তবে ঢুকে যাওয়া পানি বেড়িয়ে যাওয়া ব্যবস্থা না করলে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষগুলো দীর্ঘ সময় পর্যন্ত পানি বন্দি থাকবে।

Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com