সকাল ১১:৫৮ | বুধবার | ৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং | ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শামীম এন্টারপ্রাইজের জুটমিলে গণধর্ষণ; দুই আসামির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

বিল্লাল হোসেন প্রান্তঃ আপডেটঃ

ময়মনসিংহের চরাঞ্চলে শামীম এন্টারপ্রাইজের মালিকানাধীন জুটমিলের নারী শ্রমিক (তাতী) কে গণধর্ষণ মামলার প্রধান দুই আসামি আদালতে (১৬৪)স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে।

 

 

গণধর্ষণ মামলায় গ্রেফতারকৃত আসামি আরিফ ২৩ জুলাই স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। তার দেয়া তথ্যমূলে অজ্ঞাত চার আসামির একজন সোহাগকে গ্রেফতার করে কোতোয়ালী থানা পুলিশ। ২৮ জুলাই রবিবার সোহাগ বিজ্ঞ আদালতে ১৬৪ ধারা মোতাবেক স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। তবে এ মামলার প্রধান আাসমি ইসমাঈল (২৫) কে এখনও পুলিশ গ্রেফতার করতে পারেনি।

 

 

মামলার বিবরণে জানা যায়, ধর্ষিতা বয়ড়া ছালাকান্দা এলাকার তিন সন্তানের জননী। সে তিন বছর যাবৎ ময়মনসিংহের চরাঞ্চলে শম্ভুগঞ্জ শামীম এন্টারপ্রাইজের মালিকানাধিন জুট মিলে তাতী শ্রমিক হিসাবে কর্মরত। কর্মের সুবাদে তার সাথে পরিচয় হয় জুট মিলের তাতী ইসমাঈলের সাথে।

 

 

ঘটনার দিন ২০ জুন রাত ৮ টার দিকে ইসমাঈল ধর্ষিতাকে কথা আছে বলে জুট মিলের ভেতরে ১ম শ্রেনীর কোয়ার্টারের ছাদে নিয়ে যায়। সেখানে ধর্ষিতার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে ইসমাঈলের পরিকল্পনা অনুযায়ী আগে থেকে উৎপেতে থাকা তার চার বন্ধু আসে। ধর্ষিতাকে একটি পরিত্যক্ত পানির ট্যাংকির ভিতরে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এবং ধর্ষিতার মোবাইল,স্বর্ণের চেইন,নগদ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

 

 

ঘটনার ৫ দিন পর ২৬ জুন ইসমাঈলের বোন জামাই মামলার দ্বিতীয় আসামি আরিফ(২৫) আপোষ মিমাংশার কথা বলে ধড়ষিতাকে তাদের বাড়িতে নিয়ে একমাস আটকে রাখে। এবং প্রতিনিয়ত বিভিন্ন হুমকি দিতে থাকে কোন মামলা মোকদ্দমা না করার জন্য। পরে ১৭ জুলাই ধর্ষিতাকে তার স্বামীর কাছে বুঝিয়ে দেয়ার কথা বলে শম্ভুগঞ্জ চামড়া বাজার মাদ্রাসার কাছে ছেড়ে দিয়ে বিবাদীরা পালিয়ে যায়।

 

 

এ ঘটনায় ধর্ষিতা সমালোচনার মুখে তার স্বামী ও আত্মীয় স্বজনের পরামর্শে ২৩ জুলাই কোতোয়ালী থানায় নিজে বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। মামলায় ইসমাঈল ও আরিফ এর নাম উল্লেখপূর্বক অজ্ঞাত চারজনকে আসামি করা হয়।

 

 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি তদন্ত খন্দকার শাকের আহমেদ জানান, জুটমিলে গণধর্ষণ মামলার দুই আসামিকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। আজ (২৮ জুলাই) সোহাগ নামের এজাহার নামিয় আসামি বিজ্ঞ আদালতে ১৬৪ ধারামূলে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। তিনি বলেন, বাকি আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশি পক্রিয়া চলছে। আইনের হাত থেকে কেউ ছাড় পাবেনা।

Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» প্রতিবন্ধী ও অসহায়দের মাঝে ময়মনসিংহ মহানগর যুবলীগের খাবার বিতরণ

» প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে জেলা যুবলীগের বৃক্ষ রোপণ ও খাবার বিতরণ

» ময়মনসিংহের কৃষ্টপুরে নিয়ম বহির্ভূত বিল্ডিংয়ে জনদুর্ভোগ

» ময়মনসিংহে মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের প্রতিবাদ সমাবেশ, মানববন্ধন

» ছাত্রলীগের পদ প্রত্যাশায় ত্যাগী নেতাদের নিয়ে সমালোচনার প্রতিযোগীতা

» পরাণগঞ্জে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন প্রতিবাদ সমাবেশ

» কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের আগস্ট আলোচনা সভায় ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগ

» দলীয় সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে সম্মেলন;একান্ত স্বাক্ষাৎকারে-সাংঠনিক সম্পাদক নাদেল

» সংগ্রাম ছাড়া, রাজপথ ছাড়া নেতা হওয়া যায়না,চক্রান্ত করা যায়- ইউসুফ খান পাঠান

» ময়মনসিংহে দোকানকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ ককটেল চার্জ ৩১ আটক

» ময়মনসিংহে ফের ৮জনের মৃত্যু; মানুষ খেকো মহাসড়ক ১৪ দিনে কেড়ে নিলো ২২ প্রাণ

» ময়মনসিংহের সড়কে মৃত্যুর মিছিল! ১০ দিনের ব্যবধানে ঝরে গেল ১৫ তাজা প্রাণ

» ধোবাউড়ায় গৃহবধূর মৃত্যু; আত্মহত্যা না হত্যা তা নিয়ে ধুম্রজাল!

» ময়মনসিংহে বাস-সিএনজি সংঘর্ষে নিহত ৭

» তথ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসানের নামে অপপ্রচারের প্রতিবাদে মানববন্ধন

আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com

,

basic-bank

শামীম এন্টারপ্রাইজের জুটমিলে গণধর্ষণ; দুই আসামির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

বিল্লাল হোসেন প্রান্তঃ আপডেটঃ

ময়মনসিংহের চরাঞ্চলে শামীম এন্টারপ্রাইজের মালিকানাধীন জুটমিলের নারী শ্রমিক (তাতী) কে গণধর্ষণ মামলার প্রধান দুই আসামি আদালতে (১৬৪)স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে।

 

 

গণধর্ষণ মামলায় গ্রেফতারকৃত আসামি আরিফ ২৩ জুলাই স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। তার দেয়া তথ্যমূলে অজ্ঞাত চার আসামির একজন সোহাগকে গ্রেফতার করে কোতোয়ালী থানা পুলিশ। ২৮ জুলাই রবিবার সোহাগ বিজ্ঞ আদালতে ১৬৪ ধারা মোতাবেক স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। তবে এ মামলার প্রধান আাসমি ইসমাঈল (২৫) কে এখনও পুলিশ গ্রেফতার করতে পারেনি।

 

 

মামলার বিবরণে জানা যায়, ধর্ষিতা বয়ড়া ছালাকান্দা এলাকার তিন সন্তানের জননী। সে তিন বছর যাবৎ ময়মনসিংহের চরাঞ্চলে শম্ভুগঞ্জ শামীম এন্টারপ্রাইজের মালিকানাধিন জুট মিলে তাতী শ্রমিক হিসাবে কর্মরত। কর্মের সুবাদে তার সাথে পরিচয় হয় জুট মিলের তাতী ইসমাঈলের সাথে।

 

 

ঘটনার দিন ২০ জুন রাত ৮ টার দিকে ইসমাঈল ধর্ষিতাকে কথা আছে বলে জুট মিলের ভেতরে ১ম শ্রেনীর কোয়ার্টারের ছাদে নিয়ে যায়। সেখানে ধর্ষিতার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে ইসমাঈলের পরিকল্পনা অনুযায়ী আগে থেকে উৎপেতে থাকা তার চার বন্ধু আসে। ধর্ষিতাকে একটি পরিত্যক্ত পানির ট্যাংকির ভিতরে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এবং ধর্ষিতার মোবাইল,স্বর্ণের চেইন,নগদ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

 

 

ঘটনার ৫ দিন পর ২৬ জুন ইসমাঈলের বোন জামাই মামলার দ্বিতীয় আসামি আরিফ(২৫) আপোষ মিমাংশার কথা বলে ধড়ষিতাকে তাদের বাড়িতে নিয়ে একমাস আটকে রাখে। এবং প্রতিনিয়ত বিভিন্ন হুমকি দিতে থাকে কোন মামলা মোকদ্দমা না করার জন্য। পরে ১৭ জুলাই ধর্ষিতাকে তার স্বামীর কাছে বুঝিয়ে দেয়ার কথা বলে শম্ভুগঞ্জ চামড়া বাজার মাদ্রাসার কাছে ছেড়ে দিয়ে বিবাদীরা পালিয়ে যায়।

 

 

এ ঘটনায় ধর্ষিতা সমালোচনার মুখে তার স্বামী ও আত্মীয় স্বজনের পরামর্শে ২৩ জুলাই কোতোয়ালী থানায় নিজে বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। মামলায় ইসমাঈল ও আরিফ এর নাম উল্লেখপূর্বক অজ্ঞাত চারজনকে আসামি করা হয়।

 

 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি তদন্ত খন্দকার শাকের আহমেদ জানান, জুটমিলে গণধর্ষণ মামলার দুই আসামিকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। আজ (২৮ জুলাই) সোহাগ নামের এজাহার নামিয় আসামি বিজ্ঞ আদালতে ১৬৪ ধারামূলে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। তিনি বলেন, বাকি আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশি পক্রিয়া চলছে। আইনের হাত থেকে কেউ ছাড় পাবেনা।

Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com