সন্ধ্যা ৬:০১ | বুধবার | ৮ই এপ্রিল, ২০২০ ইং | ২৫শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

এখনও মানুষকে একটা ভালো সেবা দেয়া আমরা শিখিনি- ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক

বিল্লাল হোসেন প্রান্তঃ

করদাতা যারা আছেন তারা যেন কোনভাবেই হয়রানির শিকার না হয়। এটা আমাদের আসলে অভ্যাস হয়ে গেছে। এখনও মানুষকে একটা ভালো সেবা দেয়া আমরা শিখিনি। ভূমি অফিসগুলোতে মানুষের এখনও অনেক কষ্ট। বিভিন্ন অফিসে গেলে মানুষ এখনও হয়রানির শিকার হয়। নিজের বক্তব্যে কথাগুলো বলছিলেন ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক মোঃ মিজানুর রহমান।

 

 

তিনি ১৩ নভেম্বর বুধবার ময়মনসিংহ আঞ্চলিক কর বিভাগের আয়োজনে সেরা করদাতাদের সম্মাননা ও সনদ প্রদান ২০১৯ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন।

 

 

জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান বলেন, এই জিমনেশিয়ামটার সামনে দেখেন রাস্তাটা কত সুন্দর। এইদিক দিয়ে সব ভিআইপিরা সার্কিট হাউজে যায়। রাস্তায় দেখবেন কয়েক যায়গায় অল্প ফুটোর মতো হয়ে গেছে। বিআইডিসির দায়িত্বশীলদের আমি কতবার অনুরোধ করেছি যে, রাস্তাটি মেরামত করে দেয়ার জন্য। আমার মনে হয়, আমাকে যদি বলে আমি পনের হাজার টাকা দিয়ে রাস্তাটি ঠিক করে দেব। কিন্তু রাস্তাটা ঠিক হচ্ছে না।

তিনি বলেন, নাগরীকরা যেমন কর দেবে সাথে সাথে আমরা যারা দায়িত্বশীল-নাগরীকদের সার্ভিসটা নিশ্চিত করার জন্যও কিন্তু আমাদের দায়িত্বশীল হওয়ার অভ্যাসটা করতে হবে। অনেক স্থাপনা নির্মাণ করা হয়। অনেক স্কুল কলেজ নির্মিত হয়েছে। পাঁচ বছর হয়নি এখনি ছাদদিয়ে পানি পরে। আমাদের ভয়ে মানুষ আসলে অনেক কথা বলতে পারেনা। আমাদের এখন নাগরীকদের দিয়ে বলিয়ে নেয়ার অভ্যাস করাতে হবে।

 

 

ডিসি বলেন, নাগরীকরা যেমন কর দেবে সাথে সাথে আমরা যারা দায়িত্বশীল করদাতাদের নাগরীক সেবা নিশ্চিত করার দায়িত্ব কিন্তু আমাদের। আমরা বিশ্বাস করি এখানে অনেক সেবা প্রদানকারী দপ্তর আছে, ডিসি আছে, এসপি আছে, সিটি করপোরেশন আছে, টেক্সটে বিভাগ আছে, স্বাস্থ্য বিভাগ আছে আমাদের কিন্তু এটা ভাবতে হবে আমাদের লেখাপড়া করিয়েছে কে? বাবা মা- না। লেখাপড়া করিয়েছে এদেশের জনগণ। এটি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের কথা।

 

 

ডিসি বলেন, আমি মিজানুর রহমান একজন সাধারণ শিক্ষকের ছেলে। আমি ডিসি হতে পারতাম না, যদিনা জনগনের করের টাকায় শিক্ষাদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলো প্রতিষ্ঠিত না হতো। আমার দ্বারা সম্ভব হতো না ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া, স্কলারশিপ নিয়ে বিদেশে গিয়ে পড়ার। এজন্য এ করদাতা মানুষগুলোর প্রতি আমাদের প্রত্যেকের দায়বদ্ধতা আছে।

 

 

তিনি উপস্থিত সকলকে অনুরোধ করে বলেন, (ইংরেজিতে)চলে যাওয়া দিন অতীত, আজকের দিনটি নতুন দিন, আগামীকা আরেক দিন- মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এই বাংলাদেশকে আমরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা করে গড়ে তুলবো। আমরা আপনাদের প্রত্যেকের সাহায্যে চাই।

 

 

অনুষ্ঠানে সেরা করদাতাদের হাতে সম্মাননা সনদ তুলে দেন সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ এমপি। তিনি প্রধান অতিথি হিসাবে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

ময়মনসিংহ কর অঞ্চলের কর কমিশনার মোঃ ফজলুর রহমান এর সভাপতিত্বে ও অতিরিক্ত কর কমিশনার মোঃ শামীমুর রহমান এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, ময়মনসিংহ সিটি মেয়র ইকরামুল হক টিটু, অতিরিক্ত ডিআইজি ড. আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া,ময়মনসিংহ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হুমায়ন কবির, ময়মনসিংহ ট্যাক্সেস বার এসোসিয়েশন এর সভাপতি এড. সাদিক হোসেন, সর্বোচ্চ করদাতা মাহবুব রেজা করিম প্রমুখ।

 

 

বক্তরা দেশের উন্নয়নে করদাতাদের অংশীদারত্বের প্রশংসা করে বলেন, একটি দেশ ও রাষ্ট্রীয় কাঠামো শক্তিশালী করতে কর বড় সহায়ক। বক্তারা নাগরীকদের দেয়া করের সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করণের উপর  জোর দিয়ে বলেন, বর্তমান সরকারের সফল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এটি করতে সক্ষম হয়েছে। দেশের নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মাসেতু করছেন। যদিও দেশের ১৬ কোটি মানুষের মাঝে মাত্র এক পার্সেন্ট নাগরীর কর দিচ্ছেন, তবুও বর্তমান সময়ে দেশের অর্থনৈতিক প্রবিদ্ধ অতীতের তুলনায় অনেক বেশি। বক্তারা ময়মনসিংহের সেরা করদাতাদের প্রতি আন্তরিক অভিনন্দন জানান।

 

 

এবছর ময়মনসিংহ বিভাগে সেরা করদাতা সম্মাননা সনদ পেয়েছেন ৪২ জন এর মধ্যে ময়মনসিংহ জেলা ও সিটি করপোরেশনে ১৪ জন রয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» ছবির মানুষগুলো আছেন আপনার পাশে; চাইছেন শুধু ঘরে থাকার সহযোগীতা

» যুবলীগ নেতা রাসেল পাঠানের উদ্যোগে দ্বিতীয় দিনে চলছে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

» সুষ্ঠু পরিকল্পনায় যুবলীগ নেতা রাসেল পাঠানের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

» থেমে গেল একটি কলম; ময়মনসিংহের কিংবদন্তি সাংবাদিক আশিক চৌধুরীর মহাপ্রস্থান

» ময়মনসিংহ রেঞ্জ ডিআইজির খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

» ঘরে থাকুন, খাবার পৌঁছে যাবে আপনার ঘরে-ময়মনসিংহের ডিসি

» ময়মনসিংহের আঠারো বাড়িতে ছাত্রলীগের উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ

» শম্ভুগঞ্জ বেদে বস্তিতে জেলা পুলিশের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

» ময়মনসিংহ মহানগর ছাত্রলীগ নেতা রাহাতের উদ্যোগে দিনব্যাপী খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

» ময়মনসিংহে ৪ জঙ্গি গ্রেফতার, জিহাদী বইসহ সরঞ্জাম উদ্ধার

» ময়মনসিংহ মহিলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে জীবানুনাশক সামগ্রী বিতরণ

» নিজ এলাকার একশত অসহায় পরিবারকে খাদ্যসহায়তার ঘোষনা দিলেন আসাদুজ্জামান রুমেল

» এবার মাইক হাতে নিজেই মাঠে নেমেছেন ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার

» ময়মনসিংহ পুলিশের পক্ষ থেকে খাদ্যসামগ্রী ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ

» ময়মনসিংহে সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করতে মাঠে নেমেছে সেনাবাহিনী

আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com

,

basic-bank

এখনও মানুষকে একটা ভালো সেবা দেয়া আমরা শিখিনি- ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক

বিল্লাল হোসেন প্রান্তঃ

করদাতা যারা আছেন তারা যেন কোনভাবেই হয়রানির শিকার না হয়। এটা আমাদের আসলে অভ্যাস হয়ে গেছে। এখনও মানুষকে একটা ভালো সেবা দেয়া আমরা শিখিনি। ভূমি অফিসগুলোতে মানুষের এখনও অনেক কষ্ট। বিভিন্ন অফিসে গেলে মানুষ এখনও হয়রানির শিকার হয়। নিজের বক্তব্যে কথাগুলো বলছিলেন ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক মোঃ মিজানুর রহমান।

 

 

তিনি ১৩ নভেম্বর বুধবার ময়মনসিংহ আঞ্চলিক কর বিভাগের আয়োজনে সেরা করদাতাদের সম্মাননা ও সনদ প্রদান ২০১৯ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন।

 

 

জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান বলেন, এই জিমনেশিয়ামটার সামনে দেখেন রাস্তাটা কত সুন্দর। এইদিক দিয়ে সব ভিআইপিরা সার্কিট হাউজে যায়। রাস্তায় দেখবেন কয়েক যায়গায় অল্প ফুটোর মতো হয়ে গেছে। বিআইডিসির দায়িত্বশীলদের আমি কতবার অনুরোধ করেছি যে, রাস্তাটি মেরামত করে দেয়ার জন্য। আমার মনে হয়, আমাকে যদি বলে আমি পনের হাজার টাকা দিয়ে রাস্তাটি ঠিক করে দেব। কিন্তু রাস্তাটা ঠিক হচ্ছে না।

তিনি বলেন, নাগরীকরা যেমন কর দেবে সাথে সাথে আমরা যারা দায়িত্বশীল-নাগরীকদের সার্ভিসটা নিশ্চিত করার জন্যও কিন্তু আমাদের দায়িত্বশীল হওয়ার অভ্যাসটা করতে হবে। অনেক স্থাপনা নির্মাণ করা হয়। অনেক স্কুল কলেজ নির্মিত হয়েছে। পাঁচ বছর হয়নি এখনি ছাদদিয়ে পানি পরে। আমাদের ভয়ে মানুষ আসলে অনেক কথা বলতে পারেনা। আমাদের এখন নাগরীকদের দিয়ে বলিয়ে নেয়ার অভ্যাস করাতে হবে।

 

 

ডিসি বলেন, নাগরীকরা যেমন কর দেবে সাথে সাথে আমরা যারা দায়িত্বশীল করদাতাদের নাগরীক সেবা নিশ্চিত করার দায়িত্ব কিন্তু আমাদের। আমরা বিশ্বাস করি এখানে অনেক সেবা প্রদানকারী দপ্তর আছে, ডিসি আছে, এসপি আছে, সিটি করপোরেশন আছে, টেক্সটে বিভাগ আছে, স্বাস্থ্য বিভাগ আছে আমাদের কিন্তু এটা ভাবতে হবে আমাদের লেখাপড়া করিয়েছে কে? বাবা মা- না। লেখাপড়া করিয়েছে এদেশের জনগণ। এটি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের কথা।

 

 

ডিসি বলেন, আমি মিজানুর রহমান একজন সাধারণ শিক্ষকের ছেলে। আমি ডিসি হতে পারতাম না, যদিনা জনগনের করের টাকায় শিক্ষাদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলো প্রতিষ্ঠিত না হতো। আমার দ্বারা সম্ভব হতো না ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া, স্কলারশিপ নিয়ে বিদেশে গিয়ে পড়ার। এজন্য এ করদাতা মানুষগুলোর প্রতি আমাদের প্রত্যেকের দায়বদ্ধতা আছে।

 

 

তিনি উপস্থিত সকলকে অনুরোধ করে বলেন, (ইংরেজিতে)চলে যাওয়া দিন অতীত, আজকের দিনটি নতুন দিন, আগামীকা আরেক দিন- মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এই বাংলাদেশকে আমরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা করে গড়ে তুলবো। আমরা আপনাদের প্রত্যেকের সাহায্যে চাই।

 

 

অনুষ্ঠানে সেরা করদাতাদের হাতে সম্মাননা সনদ তুলে দেন সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ এমপি। তিনি প্রধান অতিথি হিসাবে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

ময়মনসিংহ কর অঞ্চলের কর কমিশনার মোঃ ফজলুর রহমান এর সভাপতিত্বে ও অতিরিক্ত কর কমিশনার মোঃ শামীমুর রহমান এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, ময়মনসিংহ সিটি মেয়র ইকরামুল হক টিটু, অতিরিক্ত ডিআইজি ড. আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া,ময়মনসিংহ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হুমায়ন কবির, ময়মনসিংহ ট্যাক্সেস বার এসোসিয়েশন এর সভাপতি এড. সাদিক হোসেন, সর্বোচ্চ করদাতা মাহবুব রেজা করিম প্রমুখ।

 

 

বক্তরা দেশের উন্নয়নে করদাতাদের অংশীদারত্বের প্রশংসা করে বলেন, একটি দেশ ও রাষ্ট্রীয় কাঠামো শক্তিশালী করতে কর বড় সহায়ক। বক্তারা নাগরীকদের দেয়া করের সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করণের উপর  জোর দিয়ে বলেন, বর্তমান সরকারের সফল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এটি করতে সক্ষম হয়েছে। দেশের নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মাসেতু করছেন। যদিও দেশের ১৬ কোটি মানুষের মাঝে মাত্র এক পার্সেন্ট নাগরীর কর দিচ্ছেন, তবুও বর্তমান সময়ে দেশের অর্থনৈতিক প্রবিদ্ধ অতীতের তুলনায় অনেক বেশি। বক্তারা ময়মনসিংহের সেরা করদাতাদের প্রতি আন্তরিক অভিনন্দন জানান।

 

 

এবছর ময়মনসিংহ বিভাগে সেরা করদাতা সম্মাননা সনদ পেয়েছেন ৪২ জন এর মধ্যে ময়মনসিংহ জেলা ও সিটি করপোরেশনে ১৪ জন রয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com