বিকাল ৫:৪১ | শুক্রবার | ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং | ৩রা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বিদ্যুৎ বিড়ম্বনায় বিক্ষুদ্ধ চুরখাইয়ের শতাধিক পরিবার

বিল্লাল হোসেন প্রান্তঃ

“ও মানিক কি বাত্তি জ্বালাইলি সবতো ফকফকা” ৮০ দশকের এই বিজ্ঞাপনটি এখন আর চলে না। কারণ এখন দেশ বিদ্যুতে স্বয়ংসম্পূর্ণ। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ বর্তমান সরকারের অঙ্গিকার। তবে ময়মনসিংহ চুরখাইয়ের একটি গ্রামে ফিলিপস লাইট লাগিয়েও আলোর দেখা মিলছে না।

 

 

খুটি  ছাড়া গাছের উপর দিয়ে একতারে টানা হয়েছে বিদ্যুতের লাইন। লো ভোল্টেজে জ্বলেনা লাইট, ঘুরে না ফ্যান। প্রতিমাসে বিল আসলেও বিদ্যুৎ সুবিধা পাচ্ছেনা ময়মনসিংহ সদর উপজেলার চুরখাই মধ্যপাড়া বাগানবাড়ী এলাকার শতাধিক পরিবার।

 

 

কম ভোল্টেজের কারণে বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম নষ্ট, তার পুড়ে যাওয়াসহ নানা বিড়ম্বনায় গ্রামবাসীকে প্রতিমাসেই গুনতে হচ্ছে মিস্ত্রি খরচ। দিনের বেলা যেনতেনভাবে চললেও রাতে কোন কাজই করেনা এ বিদুৎ লাইন। স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা বিদ্যুৎ লাইন থাকা সত্বেও হারিকেন, চার্জ লাইটের আলোয় পড়ালেখা করে। নিজেদের কষ্টের কথাগুলো অভিযোগ তুলেই জানাচ্ছিলেন ভুক্তভোগী গ্রামবাসী।

ভুক্তভোগী মনসুর বলেন, আমি গত মাসে ১৮৫ টাকা বিদুৎ বিল দিয়েছি। আমার ঘরে ২টি ফ্যান ২ টি লাইট আছে। কিন্তু লাইট, ফ্যান না চলেই এই বিল দিতে হচ্ছে। একই অভিযোগ করেন আলতাফ, সাত্তার আকন্দ। তারা আরও অভিযোগ করেন দিনের বেলা ফ্রিজ চলে না, রাতে চলে। এরকম সমস্যা নিয়েই দীর্ঘ ৬ বছর যাবৎ আমরা মধ্যপাড়া বাগানবাড়ী এলাকার মানুষ দিন পার করছি।

 

 

একই গ্রামের সুরুজ আলী বলেন, এখানে বিদ্যুতের লাইন নিতে আমাদের টাকায় তার, খুটি কিনা হয়েছে। লাইন প্রতি ৬-৭ হাজার টাকা করে নিয়েছে বিদ্যুতের লোক। দিয়েছে একটি করে মিটার। বিদুৎ ব্যবহার না করেও বিল দিতে হচ্ছে আমাদের।

 

 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ময়মনসিংহ পিডিপি ডিভিশন-২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী ইন্দ্রজিৎ বলেন, আগামী জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারি মাসে ওই এলাকার বিদ্যুতের কোন সমস্যাই থাকবে না। নতুন লাইনের জন্য একটি প্রজেক্ট ধরা হয়েছে। জানুয়ারি ফেব্রুয়ারিতে কাজ ধরা হবে। কোন প্রকারের লো ইস্ট্যান্ডার্ড থাকবে না।

Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» ময়মনসিংহে মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের প্রতিবাদ সমাবেশ, মানববন্ধন

» ছাত্রলীগের পদ প্রত্যাশায় ত্যাগী নেতাদের নিয়ে সমালোচনার প্রতিযোগীতা

» পরাণগঞ্জে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন প্রতিবাদ সমাবেশ

» কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের আগস্ট আলোচনা সভায় ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগ

» দলীয় সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে সম্মেলন;একান্ত স্বাক্ষাৎকারে-সাংঠনিক সম্পাদক নাদেল

» সংগ্রাম ছাড়া, রাজপথ ছাড়া নেতা হওয়া যায়না,চক্রান্ত করা যায়- ইউসুফ খান পাঠান

» ময়মনসিংহে দোকানকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ ককটেল চার্জ ৩১ আটক

» ময়মনসিংহে ফের ৮জনের মৃত্যু; মানুষ খেকো মহাসড়ক ১৪ দিনে কেড়ে নিলো ২২ প্রাণ

» ময়মনসিংহের সড়কে মৃত্যুর মিছিল! ১০ দিনের ব্যবধানে ঝরে গেল ১৫ তাজা প্রাণ

» ধোবাউড়ায় গৃহবধূর মৃত্যু; আত্মহত্যা না হত্যা তা নিয়ে ধুম্রজাল!

» ময়মনসিংহে বাস-সিএনজি সংঘর্ষে নিহত ৭

» তথ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসানের নামে অপপ্রচারের প্রতিবাদে মানববন্ধন

» এ্যাপ মিউজিকে গান গেয়ে সাড়া ফেলছে সাংবাদিক আওলাদ রুবেল

» ময়মনসিংহ জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের কার্যক্রম স্থগিত; কারণ দর্শানর নোটিশ

» সাবেক ধর্মমন্ত্রীর সাথে তথ্যপ্রতিমন্ত্রীর সৌজন্য স্বাক্ষাৎ

আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com

,

basic-bank

বিদ্যুৎ বিড়ম্বনায় বিক্ষুদ্ধ চুরখাইয়ের শতাধিক পরিবার

বিল্লাল হোসেন প্রান্তঃ

“ও মানিক কি বাত্তি জ্বালাইলি সবতো ফকফকা” ৮০ দশকের এই বিজ্ঞাপনটি এখন আর চলে না। কারণ এখন দেশ বিদ্যুতে স্বয়ংসম্পূর্ণ। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ বর্তমান সরকারের অঙ্গিকার। তবে ময়মনসিংহ চুরখাইয়ের একটি গ্রামে ফিলিপস লাইট লাগিয়েও আলোর দেখা মিলছে না।

 

 

খুটি  ছাড়া গাছের উপর দিয়ে একতারে টানা হয়েছে বিদ্যুতের লাইন। লো ভোল্টেজে জ্বলেনা লাইট, ঘুরে না ফ্যান। প্রতিমাসে বিল আসলেও বিদ্যুৎ সুবিধা পাচ্ছেনা ময়মনসিংহ সদর উপজেলার চুরখাই মধ্যপাড়া বাগানবাড়ী এলাকার শতাধিক পরিবার।

 

 

কম ভোল্টেজের কারণে বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম নষ্ট, তার পুড়ে যাওয়াসহ নানা বিড়ম্বনায় গ্রামবাসীকে প্রতিমাসেই গুনতে হচ্ছে মিস্ত্রি খরচ। দিনের বেলা যেনতেনভাবে চললেও রাতে কোন কাজই করেনা এ বিদুৎ লাইন। স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা বিদ্যুৎ লাইন থাকা সত্বেও হারিকেন, চার্জ লাইটের আলোয় পড়ালেখা করে। নিজেদের কষ্টের কথাগুলো অভিযোগ তুলেই জানাচ্ছিলেন ভুক্তভোগী গ্রামবাসী।

ভুক্তভোগী মনসুর বলেন, আমি গত মাসে ১৮৫ টাকা বিদুৎ বিল দিয়েছি। আমার ঘরে ২টি ফ্যান ২ টি লাইট আছে। কিন্তু লাইট, ফ্যান না চলেই এই বিল দিতে হচ্ছে। একই অভিযোগ করেন আলতাফ, সাত্তার আকন্দ। তারা আরও অভিযোগ করেন দিনের বেলা ফ্রিজ চলে না, রাতে চলে। এরকম সমস্যা নিয়েই দীর্ঘ ৬ বছর যাবৎ আমরা মধ্যপাড়া বাগানবাড়ী এলাকার মানুষ দিন পার করছি।

 

 

একই গ্রামের সুরুজ আলী বলেন, এখানে বিদ্যুতের লাইন নিতে আমাদের টাকায় তার, খুটি কিনা হয়েছে। লাইন প্রতি ৬-৭ হাজার টাকা করে নিয়েছে বিদ্যুতের লোক। দিয়েছে একটি করে মিটার। বিদুৎ ব্যবহার না করেও বিল দিতে হচ্ছে আমাদের।

 

 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ময়মনসিংহ পিডিপি ডিভিশন-২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী ইন্দ্রজিৎ বলেন, আগামী জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারি মাসে ওই এলাকার বিদ্যুতের কোন সমস্যাই থাকবে না। নতুন লাইনের জন্য একটি প্রজেক্ট ধরা হয়েছে। জানুয়ারি ফেব্রুয়ারিতে কাজ ধরা হবে। কোন প্রকারের লো ইস্ট্যান্ডার্ড থাকবে না।

Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com