বিকাল ৪:১৬ | শুক্রবার | ২৯শে মে, ২০২০ ইং | ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বিশেষ ওএমএস খাদ্য তালিকায় কারাবন্দীর নাম; সমালোচনার ঝড়

বিল্লাল হোসেন প্রান্তঃ

বিশেষ ওএমএস খাদ্যকার্ডের আওতায় প্রনীত তালিকায় যাবজ্জীবন কারাদন্ডপ্রাপ্ত কারাবন্দীর নাম ওঠানোর ঘটনায় ময়মনসিংহে ব্যাপক সমালোচনা ঝড় উঠেছে। ১৬ নং ওয়ার্ডের প্রকাশিত তালিকার ৪৯৬ নাম্বার ক্রমিকের মিঠুন চন্দ্র সাহা মাদকদ্রব্য সংক্রান্ত মামলায় যাবজ্জীবন কারাদন্ডপ্রাপ্ত কারাবন্দী। সে বর্তমানে জেলখানায় থাকলেও তার নাম তালিকায় রয়েছে বলে জানা গেছে।

 

 

সিটি করপোরেশন এলাকার বেশ কয়েকটি ওয়ার্ডে কাউন্সিরলদের দেয়া প্রকাশিত চূড়ান্ত তালিকায় এমন ত্রুটি নিয়ে চলছে সমালোচনা। মন্তব্য চলছে স্বজনপ্রীতি, নিজস্ব ভোটার বলয়, একই পরিবারের একাধিক ব্যাক্তিদের রাখা হয়েছে তালিকায়। বাদ পড়েছে অনেক অসহায় পরিবার।

  এবিষয়ে ১৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মান্নান বলেন, তালিকা প্রনয়ন আমার মাধ্যমে হলেও ওয়ার্ডের বিশেষ ব্যাক্তিরাও নাম প্রদান করেছেন। আমার ওয়ার্ডে ৬শ কার্ডের মধ্যে আমি পেয়েছি ৪শ,রাজনীতিক ও সমাজসেবকরা দিয়েছেন ২শ। এটি সিটি করপোরেশন থেকে বন্টন করে দিয়েছে। তবে এ সুবিধার আওতায় পড়েন না বা একই পরিবারের একাধিক ব্যাক্তি কার্ড পেলেও তারা চাল পাবেনা বলেও তিনি জানান।

 

 

করোনা সংকট মোকাবেলায় সরকার হতদরিদ্র ও সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য বিশেষ ওএমএস সুবিধা চালু করেছে। এর আওতায় ১০ টাকা কেজি দরে মাসিক ২০ কেজি চাল দেয়ার ব্যবস্থা করেছে সরকার। মূলত যাদের নাম সরকারের মাসিক সহায়তা বা সামাজিক নিরাপত্তা সহায়তার আওতায় নেই এমন দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জন্যই এ সহায়তা কার্যক্রম।

খোলা বাজার (ওএমএস) খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর আওতায় ময়মনসিংহের নির্ধারিত ডিলাররা চাল বিক্রি করে আসছে। করোনা সংকটে দরিদ্র মানুষ যাতে স্বল্পমূল্যে চাল ক্রয় করতে পারে সে লক্ষে বিশেষ ওএমএস চালু করা হয়েছে। একই সাথে নগদ অর্থ সহায়তা প্রদানের ঘোষনা দিয়েছে সরকার। এক্ষেত্রে সুবিধাভোগীদের তালিকা প্রনয়ণের দায়িত্ব পড়েছে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের উপর।

 

 

জানা গেছে, ময়মনসিংহ সদর উপজেলার ১৩ ইউনিয়ন ও সিটি করপোরেশন ৩৩ ওয়ার্ডে আগামী ১৬ মে থেকে প্রনীত তালিকা অনুযায়ী চাল,আটা বিক্রি করবে ওএমএস ডিলাররা। ইতিমধ্যে সিটি করপোরেশনের সবকটি ওয়ার্ড থেকে প্রদত্ত কার্ড প্রাপ্তদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। প্রকাশিত তালিকায় কারাবন্দীর নাম ওঠানো, দ্বৈত নাম, এক ঘরের একাধিক নাম, হোল্ডিং নম্বর না থাকাসহ বিভিন্ন ত্রুটি নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়েছে।

 

 

বিষয়টি নিয়ে একাধিক জনপ্রতিনিধির সাথে কথা বললে এ প্রতিবেদককে তারা জানান, প্রদত্ত তালিকাটি সংশোধনযোগ্য। মাঠ পর্যায়ে কাজ করলে ভুলত্রুটি হতে পারে। কেউ অভিযোগ বা কোন অসংগতির বিষয়ে তাদের স্ব স্ব জনপ্রতিনিধিকে জানালে তা ঠিক করে দেয়ার সুযোগ আছে। তবে তালিকায় থাকার মতো কোন ব্যাক্তি বাদ পড়লে অসন্তোষের কারণ নেই। সরকার একাধিক সহায়তা কার্যক্রম চালু রেখেছে, সহায়তা থেকে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর কেউ বাদ পড়বেনা।

Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» মমেক হাসপাতালের নতুন ভবনে কোভিড চিকিৎসার সিদ্ধান্ত আত্মঘাতী

» বেসরকারি স্বাস্থ্যকর্মীদের ঈদ উপহার নগদ অর্থ দিলেন করোনা যোদ্ধা ডা: আশিক

» আফাজ উদ্দিন সরকার ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ঈদ সামগ্রী বিতরণ

» এসএসসি ১৯৯৯-২০০০ ব্যাচের উদ্যােগে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ

» মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা শাহজাদার ইফতার ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

» ছিন্নমূলদের মাঝে খাবার বিতরণ করলো জেলা ছাত্রলীগ নেতা নাহিদুল

» ঈদের পূর্বে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার পাচ্ছে না হালুয়াঘাটের ধুরাইলবাসী! ভিডিও

» বাকৃবি ২০১১-১৩ ছাত্রলীগের উদ্যোগে দরিদ্রদের মাঝে ঈদ সামগ্রী প্রদান

» ঈশ্বরগঞ্জে যুবলীগ নেতা মাহবুবের ঈদ উপহার পেলো ৪শ পরিবার

» দ্বিতীয় দিনে ৩শ পরিবারকে ঈদ উপহার দিলেন যুবলীগ নেতা রুমেল

» আগামীকাল থেকে নিত্যপণ্য ছাড়া সকল দোকানপাট বন্ধ থাকবে

» আনন্দমোহন কলেজ মাঠ থেকেই ছাত্রলীগ সভাপতি রকিবের ত্রাণ বিতরণ

» ঈদ উপহার নিয়ে এক হাজার পরিবারের পাশে যুবলীগ নেতা আসাদুজ্জামান রুমেল

» ঈদে কেনাকাটার টাকায় খাদ্য কিনে প্রতিবন্ধীদের দিলেন ময়মনসিংহের এসপি

» বিশেষ ওএমএস খাদ্য তালিকায় কারাবন্দীর নাম; সমালোচনার ঝড়

আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com

,

basic-bank

বিশেষ ওএমএস খাদ্য তালিকায় কারাবন্দীর নাম; সমালোচনার ঝড়

বিল্লাল হোসেন প্রান্তঃ

বিশেষ ওএমএস খাদ্যকার্ডের আওতায় প্রনীত তালিকায় যাবজ্জীবন কারাদন্ডপ্রাপ্ত কারাবন্দীর নাম ওঠানোর ঘটনায় ময়মনসিংহে ব্যাপক সমালোচনা ঝড় উঠেছে। ১৬ নং ওয়ার্ডের প্রকাশিত তালিকার ৪৯৬ নাম্বার ক্রমিকের মিঠুন চন্দ্র সাহা মাদকদ্রব্য সংক্রান্ত মামলায় যাবজ্জীবন কারাদন্ডপ্রাপ্ত কারাবন্দী। সে বর্তমানে জেলখানায় থাকলেও তার নাম তালিকায় রয়েছে বলে জানা গেছে।

 

 

সিটি করপোরেশন এলাকার বেশ কয়েকটি ওয়ার্ডে কাউন্সিরলদের দেয়া প্রকাশিত চূড়ান্ত তালিকায় এমন ত্রুটি নিয়ে চলছে সমালোচনা। মন্তব্য চলছে স্বজনপ্রীতি, নিজস্ব ভোটার বলয়, একই পরিবারের একাধিক ব্যাক্তিদের রাখা হয়েছে তালিকায়। বাদ পড়েছে অনেক অসহায় পরিবার।

  এবিষয়ে ১৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মান্নান বলেন, তালিকা প্রনয়ন আমার মাধ্যমে হলেও ওয়ার্ডের বিশেষ ব্যাক্তিরাও নাম প্রদান করেছেন। আমার ওয়ার্ডে ৬শ কার্ডের মধ্যে আমি পেয়েছি ৪শ,রাজনীতিক ও সমাজসেবকরা দিয়েছেন ২শ। এটি সিটি করপোরেশন থেকে বন্টন করে দিয়েছে। তবে এ সুবিধার আওতায় পড়েন না বা একই পরিবারের একাধিক ব্যাক্তি কার্ড পেলেও তারা চাল পাবেনা বলেও তিনি জানান।

 

 

করোনা সংকট মোকাবেলায় সরকার হতদরিদ্র ও সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য বিশেষ ওএমএস সুবিধা চালু করেছে। এর আওতায় ১০ টাকা কেজি দরে মাসিক ২০ কেজি চাল দেয়ার ব্যবস্থা করেছে সরকার। মূলত যাদের নাম সরকারের মাসিক সহায়তা বা সামাজিক নিরাপত্তা সহায়তার আওতায় নেই এমন দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জন্যই এ সহায়তা কার্যক্রম।

খোলা বাজার (ওএমএস) খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর আওতায় ময়মনসিংহের নির্ধারিত ডিলাররা চাল বিক্রি করে আসছে। করোনা সংকটে দরিদ্র মানুষ যাতে স্বল্পমূল্যে চাল ক্রয় করতে পারে সে লক্ষে বিশেষ ওএমএস চালু করা হয়েছে। একই সাথে নগদ অর্থ সহায়তা প্রদানের ঘোষনা দিয়েছে সরকার। এক্ষেত্রে সুবিধাভোগীদের তালিকা প্রনয়ণের দায়িত্ব পড়েছে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের উপর।

 

 

জানা গেছে, ময়মনসিংহ সদর উপজেলার ১৩ ইউনিয়ন ও সিটি করপোরেশন ৩৩ ওয়ার্ডে আগামী ১৬ মে থেকে প্রনীত তালিকা অনুযায়ী চাল,আটা বিক্রি করবে ওএমএস ডিলাররা। ইতিমধ্যে সিটি করপোরেশনের সবকটি ওয়ার্ড থেকে প্রদত্ত কার্ড প্রাপ্তদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। প্রকাশিত তালিকায় কারাবন্দীর নাম ওঠানো, দ্বৈত নাম, এক ঘরের একাধিক নাম, হোল্ডিং নম্বর না থাকাসহ বিভিন্ন ত্রুটি নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়েছে।

 

 

বিষয়টি নিয়ে একাধিক জনপ্রতিনিধির সাথে কথা বললে এ প্রতিবেদককে তারা জানান, প্রদত্ত তালিকাটি সংশোধনযোগ্য। মাঠ পর্যায়ে কাজ করলে ভুলত্রুটি হতে পারে। কেউ অভিযোগ বা কোন অসংগতির বিষয়ে তাদের স্ব স্ব জনপ্রতিনিধিকে জানালে তা ঠিক করে দেয়ার সুযোগ আছে। তবে তালিকায় থাকার মতো কোন ব্যাক্তি বাদ পড়লে অসন্তোষের কারণ নেই। সরকার একাধিক সহায়তা কার্যক্রম চালু রেখেছে, সহায়তা থেকে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর কেউ বাদ পড়বেনা।

Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com