রাত ১:০১ | সোমবার | ১৯শে এপ্রিল, ২০২১ ইং | ৬ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শীর্ষ সন্ত্রাসী আলোকে গ্রেফতারে প্রশাসন ব্যার্থ না উদাসীন? প্রতিবাদকারীরা নিরাপত্তাহীন!

বিল্লাল হোসেন প্রান্তঃ

ময়মনসিংহ নগরীর আলোচিত শীর্ষ সন্ত্রাসী আলোকে আজও গ্রেফতার করতে পারেনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। কালিঝুলি ইটাখোলা এলাকার চিহ্নিত অস্ত্র সন্ত্রাসী আলোর বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী, মাদক বাণিজ্য, অস্ত্র ব্যবসাসহ নানা অভিযোগে সাধারণ জনতা প্রতিবাদী হয়ে উঠেছে। জনরোষে আলো এলাকা ছাড়লেও প্রতিবাদকারীদের হুমকি ধামকি অব্যাহত রয়েছে। নির্দিষ্ট চাঁদাবাজির ঘটনায় আলোর বিরুদ্ধে মামলা হলেও ১৪ দিনে গ্রেফতার হয়নি আলো। প্রশ্ন উঠেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী আলোর লাগাম টানতে ব্যার্থ না উদাসহীন?

 

 

বহু মামলার আসামি আলো মিয়া সম্প্রতি গোহাইলকান্দি একাডেমী রোডের একটি বিকাশ ও মুদি দোকানে চাঁদার দাবিতে সশস্ত্র সন্ত্রাসী হামলা চালায়। রেজাউল করিম নামের এক দোকনীকে ব্যাপক মারধর করে ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় দোকানদার বাদী হয়ে ২৫ ডিসেম্বর আলোসহ সঙ্গীয় সন্ত্রাসীদের নাম উল্লেখ করে কোতোয়ালী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। এদিকে মামলা তুলে নিয়ে আলোর অব্যাহত হুমকির মুখে চরম নিরাপত্তাহীনতায় পড়েন বাদী রেজাউল করিম। সন্ত্রাসী আলোর কর্মকান্ডে প্রতিবাদী হয়ে উঠেন এলাকাবাসী।

 

 

২৫ ডিসেম্বর থেকে লাগাতার বিক্ষোভ মিছিল, প্রতিবাদ সমাবেশ করে ৫ নং ওয়ার্ড এলাকাবাসী। সন্ত্রাসী আলোর গ্রেফতার দাবিতে রেঞ্জ ডিআইজি, জেলা পুলিশ সুপার, সিটি মেয়র, র‍্যাব-১৪, জেলা প্রশাসক, কোতোয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। পুলিশ প্রশাসন গত ১৪ দিনে আলোর তিন সহযোগীকে গ্রেফতার করলেও তাদের গডফাদার আলোকে গ্রেফতার করতে পারেনি। এ নিয়ে এলাকায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর গুরুত্বহীনতার প্রশ্ন তুলে নানা মন্তব্য উঠেছে জনমনে।

 

 

নগরীর শীর্ষ সন্ত্রাসী আলোকে সবশেষ ২০১৮ সালের ১৩ মে অস্ত্র গুলিসহ গ্রেফতার করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। তবে জামিনে মুক্ত হয়ে আলো ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে কৌশলে চাঁদাবাজির রাম রাজত্ব কায়েম করে এলাকায় নানা অপকর্মে লিপ্ত ছিলো। সাধারণ জনগণ আলোর অত্যাচারে অতিষ্ঠ হলেও ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায়নি। গুঞ্জন রয়েছে পাশ্ববর্তী এলাকার একজন প্রভাবশালী জনপ্রতিনিধি ও একজন আওয়ামী লীগ নেতার শ্যাল্টারে আলো অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেছে। তবে এবার জনতা তাদের একত্রিত প্রতিরোধে আলোকে এলাকা ছাড়া করলেও রয়েছেন আতংকের মধ্যে। কারণ আলোর সন্ত্রাসী বাহিনী এখনও এলাকায় উপস্থিত থেকে গোপনে প্রতিবাদকারীদের হুমকি অব্যাহত রেখেছে।

 

 

এলাকাবাসী কোতোয়ালী থানার অভিজ্ঞ অফিসার ইনচার্জ ফিরোজ তালুকদার ও জেলা গোয়েন্দা সংস্থার দক্ষ অফিসার ইনচার্জ শাহ কামাল আকন্দের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। জেলাব্যাপী এ দুই কর্মকর্তার চৌকস নেতৃত্বের সুনাম রয়েছে। তবে শীর্ষ সন্ত্রাসী আলোর গ্রেফতার সময়ে দাবি হলেও তা এখনও বাস্তবায়ন হয়নি। এক্ষেত্রে চরম হতাশায় রয়েছে এলাকাবাসী।

Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আস্থা রাখুন- অষ্টধারে মোহিত উর রহমান শান্ত

» করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় ময়মনসিংহ পুলিশের মাস্ক ক্যাম্পেইন কার্যক্রমের উদ্বোধন

» উন্নয়নের পাশে থাকতে শেখ হাসিনায় আস্থা রাখুন- বিশাল জনসভায় মোহিত উর রহমান শান্ত

» ময়মনসিংহে “বঙ্গবন্ধু নবম বাংলাদেশ গেমস” ভারোত্তোলন প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত

» বিএনপির গন্ধ মুছতে আপনাকে আরও কিছু বছর আওয়ামী লীগ করতে হবে- মোহিত উর রহমান শান্ত

» শেখ হাসিনা ছাড়া আর কারও উপর আস্থা রাখার দরকার নাই-মোহিত উর রহমান শান্ত

» স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে বিএনপি জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করতে চায়- নজরুল ইসলাম খান

» হাসান হত্যাকান্ডে পাগলপ্রায় মা,হতবাক গ্রামবাসী(ভিডিও সহ)

» ভূয়া বিয়ের সনদ তৈরি করে চার সন্তানের মাকে পোষ্টার ছেপে হয়রানি ; প্রতারক হানিফ গ্রেফতার

» ময়মনসিংহ ডিবি’র অভিযানে ৩ হাজার পিস ইয়াবাসহ ৪ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

» কোতোয়ালী পুলিশের তৎপরতায় আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নতি; ডাকাতি শূন্যের কোঠায়

» হাইব্রিড নিধনে শেখ হাসিনা তৎপর আগামীতে এদের অস্তিত্ব থাকবেনা দাপুনিয়া কর্মীসভায় শান্ত

» রাজনৈতিক বেনিয়াদের বিরুদ্ধে ঐক্যের ডাক; উচ্ছ্বাসে উত্তাল বিদ্রোহী মৌজা আকুয়া

» ময়মনসিংহ জেলায় শ্রেষ্ঠ ওসির পুরস্কার পেলেন মোঃ মাহমুদুল হাসান

» ৩২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগে রাজনৈতিক হৃদ্রতার মেলবন্ধন

আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com

,

basic-bank

শীর্ষ সন্ত্রাসী আলোকে গ্রেফতারে প্রশাসন ব্যার্থ না উদাসীন? প্রতিবাদকারীরা নিরাপত্তাহীন!

বিল্লাল হোসেন প্রান্তঃ

ময়মনসিংহ নগরীর আলোচিত শীর্ষ সন্ত্রাসী আলোকে আজও গ্রেফতার করতে পারেনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। কালিঝুলি ইটাখোলা এলাকার চিহ্নিত অস্ত্র সন্ত্রাসী আলোর বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী, মাদক বাণিজ্য, অস্ত্র ব্যবসাসহ নানা অভিযোগে সাধারণ জনতা প্রতিবাদী হয়ে উঠেছে। জনরোষে আলো এলাকা ছাড়লেও প্রতিবাদকারীদের হুমকি ধামকি অব্যাহত রয়েছে। নির্দিষ্ট চাঁদাবাজির ঘটনায় আলোর বিরুদ্ধে মামলা হলেও ১৪ দিনে গ্রেফতার হয়নি আলো। প্রশ্ন উঠেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী আলোর লাগাম টানতে ব্যার্থ না উদাসহীন?

 

 

বহু মামলার আসামি আলো মিয়া সম্প্রতি গোহাইলকান্দি একাডেমী রোডের একটি বিকাশ ও মুদি দোকানে চাঁদার দাবিতে সশস্ত্র সন্ত্রাসী হামলা চালায়। রেজাউল করিম নামের এক দোকনীকে ব্যাপক মারধর করে ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় দোকানদার বাদী হয়ে ২৫ ডিসেম্বর আলোসহ সঙ্গীয় সন্ত্রাসীদের নাম উল্লেখ করে কোতোয়ালী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। এদিকে মামলা তুলে নিয়ে আলোর অব্যাহত হুমকির মুখে চরম নিরাপত্তাহীনতায় পড়েন বাদী রেজাউল করিম। সন্ত্রাসী আলোর কর্মকান্ডে প্রতিবাদী হয়ে উঠেন এলাকাবাসী।

 

 

২৫ ডিসেম্বর থেকে লাগাতার বিক্ষোভ মিছিল, প্রতিবাদ সমাবেশ করে ৫ নং ওয়ার্ড এলাকাবাসী। সন্ত্রাসী আলোর গ্রেফতার দাবিতে রেঞ্জ ডিআইজি, জেলা পুলিশ সুপার, সিটি মেয়র, র‍্যাব-১৪, জেলা প্রশাসক, কোতোয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। পুলিশ প্রশাসন গত ১৪ দিনে আলোর তিন সহযোগীকে গ্রেফতার করলেও তাদের গডফাদার আলোকে গ্রেফতার করতে পারেনি। এ নিয়ে এলাকায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর গুরুত্বহীনতার প্রশ্ন তুলে নানা মন্তব্য উঠেছে জনমনে।

 

 

নগরীর শীর্ষ সন্ত্রাসী আলোকে সবশেষ ২০১৮ সালের ১৩ মে অস্ত্র গুলিসহ গ্রেফতার করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। তবে জামিনে মুক্ত হয়ে আলো ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে কৌশলে চাঁদাবাজির রাম রাজত্ব কায়েম করে এলাকায় নানা অপকর্মে লিপ্ত ছিলো। সাধারণ জনগণ আলোর অত্যাচারে অতিষ্ঠ হলেও ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায়নি। গুঞ্জন রয়েছে পাশ্ববর্তী এলাকার একজন প্রভাবশালী জনপ্রতিনিধি ও একজন আওয়ামী লীগ নেতার শ্যাল্টারে আলো অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেছে। তবে এবার জনতা তাদের একত্রিত প্রতিরোধে আলোকে এলাকা ছাড়া করলেও রয়েছেন আতংকের মধ্যে। কারণ আলোর সন্ত্রাসী বাহিনী এখনও এলাকায় উপস্থিত থেকে গোপনে প্রতিবাদকারীদের হুমকি অব্যাহত রেখেছে।

 

 

এলাকাবাসী কোতোয়ালী থানার অভিজ্ঞ অফিসার ইনচার্জ ফিরোজ তালুকদার ও জেলা গোয়েন্দা সংস্থার দক্ষ অফিসার ইনচার্জ শাহ কামাল আকন্দের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। জেলাব্যাপী এ দুই কর্মকর্তার চৌকস নেতৃত্বের সুনাম রয়েছে। তবে শীর্ষ সন্ত্রাসী আলোর গ্রেফতার সময়ে দাবি হলেও তা এখনও বাস্তবায়ন হয়নি। এক্ষেত্রে চরম হতাশায় রয়েছে এলাকাবাসী।

Print Friendly, PDF & Email
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন : Share on Facebook
Facebook
0Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



আমাদের সঙ্গী হোন

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

২২ সি কে ঘোষ রোড, ময়মনসিংহ
বার্তা কক্ষ : ০১৭৩৬ ৫১৪ ৮৭২
ইমেইল : dailyjonomot@gmail.com

© সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার দৈনিক জনমত .কম

কারিগরি সহযোগিতায় BDiTZone.com